ভারতে দিনে ৮০ হত্যা, ৭৭ ধর্ষণের ঘটনা; শীর্ষ অবস্থানে উত্তর প্রদেশ

0
1129
ভারতে দিনে ৮০ হত্যা, ৭৭ ধর্ষণের ঘটনা; শীর্ষ অবস্থানে উত্তর প্রদেশ

ভারতে ২০২০ সালে প্রতিদিন গড়ে ৮০ জনকে হত্যা এবং ৭৭টি ধর্ষণের মামলা তালিকাভূক্ত হয়েছে। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো (এনসিআরবি) এ সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, দেশটিতে ২০২০ সালে মোট ২৯ হাজার ১৯৩টি হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এই তালিকায় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে উত্তর প্রদেশ।

২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে হত্যার ঘটনা এক শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৯ সালে ২৮ হাজার ৯১৫ জনকে হত্যা করা হয়েছে। সে বছর গড়ে প্রতিদিন ৭৯টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

গত বছর সবচেয়ে বেশি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে উত্তর প্রদেশে। ওই রাজ্যে গত বছর ৩ হাজার ৭৭৯ জনকে হত্য করা হয়েছে। তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বিহারে ৩ হাজার ১৫০ জন, মহারাষ্ট্রে ২ হাজার ১৬৩ জন, মধ্যপ্রদেশে ২ হাজার ১০১ জন এবং পশ্চিমবঙ্গে ১ হাজার ৯৪৮টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২০ সালে দিল্লিতে ৪৭২টি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২০২০ সালে গড়ে প্রতিদিন ৭৭ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ওই বছর মোট ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ২৮ হাজার ৪৬টি।

গত বছর নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ৩ লাখ ৭১ হাজার ৫০৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২০১৯ সালের তুলনায় এই হার ৮ দশমিক ৩ শতাংশ কমেছে। সে বছর এই সংখ্যা ছিল ৪ লাখ ৫ হাজার ৩২৬।

২০২০ সালে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের মধ্যে ২৮ হাজার ৪৬টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এনসিআরবির ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে রাজস্থানে। গত বছর ওই রাজ্যে ৫ হাজার ৩১০ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। অপরদিকে উত্তর প্রদেশে ২ হাজার ৭৬৯ জন, মধ্যপ্রদেশে ২ হাজার ৩৩৯ জন এবং মহারাষ্ট্রে ২ হাজার ৬১টি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

২০২০ সালে নারীদের বিরুদ্ধে অপরাধের ১ লাখ ১১ হাজার ৫৪৯টি মামলা দায়ের হয়েছে। এর মধ্যে বেশিরভাগই হয়েছে স্বামী বা নারীদের স্বজনদের দ্বারা। অপরদিকে ৬২ হাজার তিনশো অপহরণের ঘটনা ঘটেছে।

গত বছর পুরো ভারতে ১০৫টি এসিড হামলার ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া এই সময়ের মধ্যে যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৭ হাজার ৪৫ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৬ হাজার ৯৬৬ জন। তবে আগের বছরের তুলনায় গত বছর অপহরণের হার ১৯ শতাংশ কমেছে।

২০২০ সালে শিশুদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনা ঘটেছে ১ লাখ ২৮ হাজার ৫৩১টি। ২০১৯ সালের তুলনায় এই হার ১৩ দশমিক ২ শতাংশ কমেছে।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন