‘মুসলিমদের মারতে অস্ত্র তুলে নিন’- হিন্দুত্ববাদী ধর্মগুরু জ্যোতি নরসিংহানন্দ

মাহমুদ উল্লাহ্‌

1
1175
‘মুসলিমদের মারতে অস্ত্র তুলে নিন’- হিন্দুত্ববাদী ধর্মগুরু যতি নরসিংহানন্দ

ভারতে মুসলিম বিদ্বেষের আগুন জ্বলছে, চলছে মুসলিম গণহত্যার চূড়ান্ত প্রস্তুতি। আর সেই আগুনে নিয়মিত ঘি ঢেলে যাচ্ছে সাধু সন্ন্যাসীর নামধারী উগ্র হিন্দু সন্ত্রাসী ধর্মগুরুরা।

গত কয়েকমাস আগে হরিদ্বারের ধর্ম সংসদে মুসলিমদের গণহত্যার ডাক দেয় হিন্দুত্ববাদী ধর্মগুরু যতি নরসিংহানন্দ। হিন্দুত্ববাদী প্রশাসন লোক দেখানোর জন্য তাকে আটক করলেও কিছুদিনের ভিতরেই জেল থেকে বেরিয়ে আসে। জেল থেকে এসেই দিল্লিতে হিন্দুদের সাধু সম্মেলনে আবারও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয় কুখ্যাত সাধু নরসিংহানন্দ। খােদ রাজধানী দিল্লিতে হিন্দুত্ববাদী প্রশাসনের নাকের ডগায় বসেই এ কাজ করেছে।

কিন্তু তাতেই ক্ষান্ত হয়নি উগ্র ধর্মগুরু জ্যোতি নরসিংহানন্দ। ফের মুসলিম নিধনে হাতে অস্ত্র তুলে নেওয়ার ডাক দিয়েছে। পূর্বের ন্যায় আবারও মুসলিমদের প্রতি ঘৃণা ছড়ানাের উদ্দেশ্যে প্রতিহিংসামূলক ভাষণ দিয়েছে। আর সেই হিংসা ছড়ানাের কাজ সে অন্য কোনাে স্থান থেকে নয়, বরং হরিদ্বারের ধর্মসংসদের ধাঁচেই হিমাচলের উনায় গোপনে একটি ধর্মসংসদের আয়োজন করে। সেখানেই উপস্থিত ছিল যতি নরসিংহানন্দ। ধর্মসভায় প্রকাশ্যেই সে হিন্দুদের অস্ত্র তুলে নিতে উসকানি দেয়।

ধর্মসভায় অন্যতম আয়োজক সত্যদেব সরস্বতী বলেছে, “আমরা কোনও আইন মানি না। কাউকে ভয় পাই না।” ওই ধর্মসভার অন্যান্য বক্তারাও প্রকাশ্যেই মুসলিম নিধনের উসকানি দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, হরিদ্বারে এক ধর্মসভায় প্রকাশ্যে মুসলিম গণহত্যার হুমকি দিয়েছিল যতি নরসিংহানন্দ। সেই ধর্মসভায় উপস্থিত ছিল হিন্দু রক্ষা সেনার প্রবোধানন্দ গিরি, বিজেপির মহিলা মোর্চার নেত্রী উদিতা ত্যাগী এবং বিজেপি নেতা অশ্বিনী উপাধ্যায়সহ অন্যান্যরা। এই বিতর্কিত ধর্মগুরুর সঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বের ঘনিষ্ঠতা সর্বজনবিদিত। যা থেকে সহজেই অনুমেয় সবকিছু হিন্দুত্ববাদী শাসকের মদদেই হচ্ছে।


 

তথ্যসূত্র
১।‘মুসলিমদের মারতে অস্ত্র তুলে নিন’, জেল থেকে ছাড়া পেয়েই ফের ‘ঘৃণা ভাষণ’ বিতর্কিত ধর্মগুরুর
https://tinyurl.com/2p9yhd2d

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন