ফেনীতে মুসলিম ছাত্রীর বোরকা নিয়ে শিক্ষক পরিমলের ধৃষ্টতাপূর্ণ কটূক্তি

মাহমুদ উল্লাহ্‌

0
1218
ফেনীতে মুসলিম ছাত্রীর বোরকা নিয়ে শিক্ষক পরিমলের কটূক্তি

ভারতে হিজাব নিষিদ্ধের পরেই বাংলাদেশে অবস্থিত হিন্দুত্ববাদীদের দালালরা মুসলিমদের বোরকাসহ ইসলামের বিধি বিধান নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য শুরু করেছে; আর এই কাজে অগ্রবর্তী ভূমিকা পালন করছে অখণ্ড ভারতের স্বপ্নে বিভোর হিন্দুরা। অপরাধীরা হিন্দু ধর্মাবলম্বী হওয়ায় ভারতের চাপে ও ভয়ে এসব ঘটনার সঠিক বিচারও হচ্ছে না। ফলে দিনকে দিন তাদের দুঃসাহস বেড়েই চলেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় এবার বোরকা নিয়ে বাজে মন্তব্য করেছে হিন্দুত্ববাদী শিক্ষক পরিমল চন্দ্র ভৌমিক।

বুধবার (২০ এপ্রিল) সকালে ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার দক্ষিণ নেয়াজপুর মকবুল আহাম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। গত সোমবার গণিত বিষয়ের ক্লাসে শিক্ষক পরিমল চন্দ্র ভৌমিক শিক্ষার্থীদের বোরকা-হিজাব নিয়ে নানা ধরনের কটুক্তি করে। সে ক্লাসে এক ছাত্রীকে সবার সামনে বোরকা হিজাব পরে আসায় অপমান করেন এবং বোরখা পরে আসতে নিষেধ করে।

পরবর্তীতে এলাকাবাসী ও স্কুলের শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে দুপুরে স্কুল পার্শ্ববর্তী ফেনী নোয়াখালী মহাসড়কে বেকের বাজার নামক স্থানে শিক্ষক পরিমল চন্দ্র ভৌমিক এর শাস্তির দাবিতে অবরোধসহ মানববন্ধন করে।

ভুক্তভোগী ৯ম শ্রেণির ছাত্রী আফছানা আফরোজ তানহা জানায়, আমাকে বলা হয়েছে ‘বোরকা হিজাব গায়ে দেয়া যাবে না। হুজুরগিরি করলে বাড়িতে করতে, স্কুলে না আসতে। ৩-৪ দিন ধরে আমাকে এই কথা বলতেছে।’

শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর দাবি, বোরকা ও হিজাব নিয়ে কটূক্তিকারী শিক্ষক পরিমল চন্দ্র ভৌমিকের পদত্যাগ চাই এবং তার কঠিন শাস্তি চাই।

দাগনভূঞা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আজিজুল হক জানান, দক্ষিণ নেয়াজপুর মকবুল আহাম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত শিক্ষক পরিমল চন্দ্র ভৌমিক এর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। মুহূর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়ায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

ইতিপূর্বেও,২০২২ সালের এসএসসি শিক্ষার্থীরা হিজাব পড়ে যাওয়ায় কলেজের প্রধান শিক্ষক সুনীল চন্দ্র বোরকা ও হিজাব নিয়ে কটুক্তি করেছে। সে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাদেশ্বর ইউনিয়নের নাছির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের প্রধান শিক্ষক।

১৫/০৩/২২ তারিখ দশম শ্রেণীর ছাত্রীরা বোরকা এবং হিজাব পরে স্কুলে যাওয়ায় সুনিল স্যার ছাত্রীদের নির্দেশ দেয় তা খুলে ফেলতে। বোরকা না খোলায় এক পর্যায়ে রেগে নিজের হাতে টেনে হিচড়ে বোরখা খোলতে শুরু করে। আর অশ্রাব্য গালাগালি করে বলতে থাকে বোরকা বা হিজাব পরলে ভুতের মত লাগে। নেকাবের নিচে খারাপ মানুষ থাকে।

এমনিভাবে, চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে (জেবি) হিজাব নিষিদ্ধ করেছে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক তুষার কান্তি বড়ুয়া। মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) হিজাব পরিধান করে এক ছাত্রী স্কুলে গেলে তাকে হেনস্থা ও বেত্রাঘাত করে।

এগুলো ভারেতের কোন ঘটনা নয় বাংলাদেশের ঘটনা। বর্তমানে চলমান ঘটনাগুলো থেকে বুঝা যায় অখণ্ড ভারত প্রতিষ্ঠার দিবাস্বপ্নের সাথে এদেশের হিন্দুত্ববাদীরা কতটা একাত্ম হয়ে গিয়েছে। তাই প্রতিবাদ-প্রতিরোধ করে এবং এদের বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনতা তৈরি করে এখনি হিন্দুত্ববাদীদের প্রভাব খর্ব করে ফেলার আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামিক চিন্তাবীদগণ।


 

তথ্যসূত্র :

১। ফেনীতে ছাত্রীর বোরকা নিয়ে কটূক্তি
https://tinyurl.com/ybms4ezb
২। হিজাবের নীচে খারাপ মানুষ থাকে, নেকাব পরলে ভূতের মত লাগে: অধ্যক্ষ
https://tinyurl.com/yh24n5k6
৩। সহপাঠীর ভিডিও প্রতিবাদ:
https://fb.watch/bSJw5r-BWv/
৪। মিরসরাইয়ে হিজাব পরায় স্কুলছাত্রীকে হেনস্থা ও বেত্রাঘাতের অভিযোগ
https://tinyurl.com/bdfy2jxh

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন