ফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

- সাইফুল ইসলাম

0
193
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

উত্তর গাজায় এখন কেবল ৪০ জন সাংবাদিক জীবিত আছেন। তারা অবরুদ্ধ অবস্থায় আছেন। তাদের কাছে খাবার পাঠানোর কোনো ব্যবস্থা নেই বলে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি সাংবাদিক সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদকমণ্ডলীর শুরুক আল-আসাদ নামে একজন সদস্য।

ইউরোপিয়ান গাজা হাসপাতালসহ খান ইউনিসের বিভিন্ন জায়গায় বিমান হামলা চালিয়েছে জায়োনিস্ট বাহিনী।

গাজায় বিশুদ্ধ পানি ও স্বাস্থ্যকর পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার অভাব রয়েছে।

ইউএনআরডব্লিউএ-এর ব্যাংক একাউন্ট ব্লক করে দিয়েছে ইসরায়েলি একটি ব্যাংক। এমন তথ্য জানিয়েছে ইসরায়েলি পত্রিকা হারেৎজ।

শনিবার সন্ধ্যা থেকে দখলীকৃত পশ্চিম তীরে অন্তত ১৪জন ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করেছে ইসরায়েলি বাহিনী।

গাজায় জায়োনিস্ট বাহিনীর হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ২৭,৩৬৫ জন ফিলিস্তিনি, আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৬৬,৬৩০ জন।

৪ ফেব্রুয়ারি জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর প্রতিরোধ যোদ্ধাদের হামলার বিবরণ:

আল-কাসসাম ব্রিগেড:

🔻 বিভিন্ন যুদ্ধাঞ্চলে ৩টি জায়োনিস্ট মারকাভা-৩ ট্যাংক, ৩টি মারকাভা-৪ ট্যাংক এবং ১টি সামরিক ডি৯ বুলডোজার ধ্বংস করেছেন।
🔻 গাজা শহরের দক্ষিণপশ্চিমের শিল্পাঞ্চলীয় এলাকায় এক জায়োনিস্ট সৈন্যকে সফলভাবে স্নাইপার হামলার শিকার বানিয়েছেন।
🔻 গাজা শহরের শিল্পাঞ্চলীয় এলাকায় একটি ভবনে অবস্থান করা জায়োনিস্ট সৈন্যদের উপর একটি দুর্গবিধ্বংসী টিবিজি গোলা দিয়ে হামলা চালিয়েছেন।
🔻 এছাড়া আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু উবাইদা হাফিজাহুল্লাহ বলেছেন,
🔻 গত কিছুদিনে আল-কাসসাম ব্রিগেড ৪৩টি জায়োনিস্ট সামরিক যান পুরোপুরি বা আংশিক ধ্বংস করেছেন।
🔻 কাছাকাছি অবস্থান থেকে ১৫ জায়োনিস্ট সৈন্যকে হত্যা করেছেন।
🔻 এক অফিসার ও এক সৈন্যকে স্নাইপার হামলার শিকার বানিয়েছেন।
🔻 ১৭টি বিভিন্ন ধরনের সামরিক অভিযানে বহু শত্রুসৈন্য হতাহত হয়েছে।
🔻 ৪টি জায়োনিস্ট ড্রোন জব্দ করেছেন।
🔻 বিভিন্ন জায়গায় জায়োনিস্ট অবস্থানে মর্টার হামলা করেছেন।
🔻 তেল আবিব ও আশপাশের দখলদার বসতিতে রকেট হামলা চালিয়েছেন।

আল-কুদুস ব্রিগেড:

🔻 খান ইউনিসের পশ্চিমাঞ্চলে এক জায়োনিস্ট বাহিনীকে সুপরিকল্পিত অ্যাম্বুশের ফাঁদে ফেলেছেন। কাছাকাছি অবস্থান থেকে যুদ্ধ করে ২ জায়োনিস্ট সৈন্যকে নিহত করেছেন এবং আরও কতিপয় সৈন্য আহত হয়েছে।
🔻 খান ইউনিসের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলে জায়োনিস্ট বাহিনীর সাথে তীব্র সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছেন।

আল-আকসা ব্রিগেড:

🔻 খান ইউনিসের পশ্চিমাঞ্চলে জায়োনিস্ট বাহিনীর সাথে উপযুক্ত যুদ্ধাস্ত্র এবং মেশিনগান দিয়ে তীব্র লড়াই করেছেন।
🔻 গাজা শহরের পশ্চিমাঞ্চলে জায়োনিস্ট বাহিনীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত যুদ্ধাস্ত্র নিয়ে লড়াই করেছেন।
🔻 গাজা শহরের শিল্পাঞ্চলীয় এলাকার উপকণ্ঠে জায়োনিস্ট বাহিনীর সামরিক যান এবং সৈন্য অবস্থানে মর্টার শেল হামলা চালিয়েছেন।
🔻 খান ইউনিসের পশ্চিমাঞ্চলে একটি ডি৯ বুলডোজারকে আরপিজি দিয়ে হামলা করেছেন।

উমার আল-কাসিম ব্রিগেড:

🔻 খান ইউনিসের আল-আমাল এলাকায় এবং শহরের কেন্দ্রে জায়োনিস্ট বাহিনীর তীব্র সংঘর্ষে জড়িয়েছেন। এতে কতিপয় শত্রুসেনা হতাহত হয়েছে।
🔻 জায়োনিস্ট বাহিনীর সামরিক যানে ২টি আরপিজি দিয়ে হামলা চালিয়েছেন।

আল-মুজাহিদিন ব্রিগেড:

🔻 খান ইউনিসের পূর্বাঞ্চলে একদল জায়োনিস্ট সৈন্য ও সামরিক যানে আল-কাসসাম ব্রিগেডের সাথে যৌথভাবে মর্টার হামলা চালিয়েছেন। এতে শত্রুসেনারা হতাহত হয়েছে। একটি জায়োনিস্ট হেলিকপ্টারকে হতাহতদের উদ্ধারে আসতে দেখা গেছে।
🔻 ফাজজাহতে জায়োনিস্ট সামরিক পোস্টে রকেট হামলা চালিয়েছেন। টার্গেটে সরাসরি আঘাত হেনেছে রকেট।
🔻 গাজা শহরে একটি মারকাভা ট্যাংকে ট্যাংক-বিধ্বংসী রকেট দিয়ে হামলা চালিয়েছে ট্যাংকটি ধ্বংস করেছেন।
🔻 গাজার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে জায়োনিস্ট বাহিনীর অবস্থানে মর্টার হামলা চালিয়েছেন।
🔻 গাজা শহরের পশ্চিমে জায়োনিস্ট বাহিনীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত যুদ্ধাস্ত্র নিয়ে তীব্র সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছেন।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধজেএনআইএম এর অভিযানে অন্তত ৯ টোগোলিজ সৈন্য হতাহত
পরবর্তী নিবন্ধকাশ্মীরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম দখলদার ভারতীয় বাহিনীর সদস্যদের নামানুসারে রাখার নির্দেশ