আফগানিস্তানে ইসলামি শাসনব্যবস্থার বিরুদ্ধে সামান্যতম পদক্ষেপও গ্রহণ করা হবে না: মৌলভী আব্দুল কবীর হাফিযাহুল্লাহ

0
346
আফগানিস্তানের রাজনীতি বিষয়ক উপ-প্রধানমন্ত্রী মৌলভী আব্দুল কবির হাফিযাহুল্লাহ
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

ইমারতে ইসলামিয়া আফগানিস্তানের রাজনীতি বিষয়ক উপ-প্রধানমন্ত্রী মৌলভী আব্দুল কবির হাফিযাহুল্লাহ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, আফগানিস্তানে ইসলামি শাসনব্যবস্থার বিরুদ্ধে দেশীয় বা বিদেশী যে কারোরই সামান্যতম কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে না।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি আফগানিস্তানে অনুষ্ঠিত “জলবায়ু পরিবর্তনে আন্তর্জাতিক সম্মেলন” শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি এ হুঁশিয়ারি প্রদান করেন। তিনি বলেন, গত দুই দশক ধরে আমরা দেশে ইসলামি শাসনব্যবস্থাকে প্রতিষ্ঠা করতে অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। এজন্য দ্বীনের ব্যাপারে কোনও অবস্থাতেই আমরা কারো সাথে আপস করব না।

তিনি আরও উল্লেখ করেছেন, বর্তমানে বিশ্ব সম্প্রদায় ইমারতে ইসলামিয়া প্রশাসনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলার উপায় বের করার চেষ্টা করছেনএবং এই উদ্দেশ্যে খুব শিগগিরই কাতারের দোহায় একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

যদিও বিশ্ব এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতির বিষয় ঘোষণা করেনি। তবু অনেক দেশের সঙ্গে তালেবান প্রশাসনের সম্পর্ক গড়ে উঠা আনুষ্ঠানিক পর্যায়ে রয়েছে এবং সেসব দেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক দিন দিন প্রসারিত হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

উল্লেখ্য যে, পশ্চিমা বিশ্ব ও কিছু মানবাধিকার সংস্থা তালেবান প্রশাসনকে বেশ কিছু ইস্যুতে নমনীয় হবার চাপ দিচ্ছে। একই সাথে তারা তালেবান প্রশাসনের কার্যক্রম নিয়ে প্রোপাগান্ডাও চালাচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে কথিত নারী অধিকারের মতো বেশ কিছু ইসলাম বিরোধী ইস্যু। ধারণা করা হচ্ছে, পশ্চিমা বিশ্ব এসব ইস্যুকে মাধ্যম করে তালেবান প্রশাসনকে স্বীকৃতি না দেয়ার অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাতে চাইছে। তবে তালেবান উমারারা বরাবরই জানিয়ে দিচ্ছেন যে, তাঁরা শরিয়াতের বিষয়ে কোন আপস করবেন না।


তথ্যসূত্র:
1. We won’t allow slightest move against the Islamic system: Deputy PM
http://tinyurl.com/yeyk92cx

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধসিরিয়ায় আবারো বিমান হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরায়েল
পরবর্তী নিবন্ধমাত্র ৫৮৫০ টাকা ভাড়া দিয়ে সরকারি ডুপ্লেক্স বাড়িতে থাকেন সচিব