সন্ত্রাসী পুলিশের লাঠিতে ছাত্রী আহত, শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

0
456
সন্ত্রাসী পুলিশের লাঠিতে ছাত্রী আহত, শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

বগুড়ার পুণ্ড্র ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির এক শিক্ষার্থী আওয়ামী দালাল সন্ত্রাসী পুলিশ বাহিনীর লাঠির আঘাতে আহত হন। গতকাল শুক্রবার বিকেলে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে মহাসড়ক অবরোধ করেন। বগুড়ায় হাইওয়ে সন্ত্রাসী পুলিশের লাঠির আঘাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী আহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে উদ্ভূত পরিস্থিতির মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বাসস্ট্যান্ড স্থাপনের দাবি জানানো হয়েছে। আহত ছাত্রী টিএমএসএস পরিচালিত পুণ্ড্র ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির বিবিএ প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র সোহানুর রহমান প্রথম আলোকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এ কে এম আজাদ-উদ-দৌলা প্রধানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা স্মারকলিপি পেশ করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, পুলিশ, শিক্ষার্থী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল ক্লাস শেষে পুণ্ড্র ইউনিভার্সিটির ছাত্রী তাসমিয়া জাহান বিশ্ববিদ্যালয়ের গোকুল ক্যাম্পাস থেকে একটি ইজিবাইকে চড়ে বগুড়া শহরের দিকে যাচ্ছিলেন। শহরের মাটিডালি এলাকায় হাইওয়ে সন্ত্রাসী পুলিশ মহাসড়কে হাতে থাকা লাঠি দিয়ে গাড়িতে আঘাত করে। এতে লাঠির আঘাত লাগে ইজিবাইকের যাত্রী তাসমিয়ার। একপর্যায়ে পুলিশ ইজিবাইক ধাক্কা দিয়ে উল্টে দিলে তাসমিয়া পড়ে গিয়ে পায়ে আঘাত পান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে লাঠি দিয়ে আঘাত ও অপদস্থ করার খবর ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা গতকাল বিকেল চারটার দিকে গোকুল এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে মহাসড়ক অবরোধ করেন। এতে মহাসড়কের মহাস্থান থেকে মাটিডালি পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

এ ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের চতুর্থ বর্ষের রকিমুজ্জামান রকি নামের এক শিক্ষার্থী সন্ত্রাসী পুলিশকে ক্ষমা চাইতে বললে বগুড়া সদর থানা-পুলিশ তাঁকে আটক করে।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন