‘আমাদের গুলিতেই নিহত হয়েছে’ — স্বীকার করল ভারতীয় সন্ত্রাসী পুলিশ

0
639
‘আমাদের গুলিতেই নিহত হয়েছে’ — স্বীকার করল ভারতীয় সন্ত্রাসী পুলিশ

মুসলিম বিরোধী কথিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভে গুলি চালানোর কথা প্রথম বারের মতো স্বীকার করেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের মালাউন সন্ত্রাসী পুলিশ।

এই বিক্ষোভে রাজ্যটিতে ১৫ জন নিহত হয়েছে। এদের অনেকেই গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করলেও রাজ্য পুলিশের দাবি ছিলো তাদের তরফে একটি গুলিও ছোড়া হয়নি।

পরে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে মালাউন সন্ত্রাসী পুলিশরা বিক্ষোভকারীদের গুলি ছোড়ছে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আজকাল সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার উত্তর প্রদেশের বিজনৌর জেলার পুলিশ সুপার মালাউন সঞ্জীব ত্যাগী স্বীকার করে, গত সপ্তাহে সিএএ–এনআরসি–র প্রতিবাদে হওয়া বিক্ষোভে আন্দোলনকারীদের উপর গুলি চালিয়েছিল পুলিশ সন্ত্রাসীরাই। আর সেই গুলিতেই যে ২০ বছরের আইএএস পরীক্ষার্থী সুলেমান মালিকের মৃত্যু হয়েছে সেকথাও এদিন স্বীকার করে নিয়েছে ত্যাগী।

সুলেমানের দাদা শোয়েব বলেছেন, তাঁর ভাই আইএএস পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। কোনও বিক্ষোভে অংশ নেননি। দিন কয়েক ধরেই জ্বরে ভুগছিলেন সুলেমান। ঘটনার দিন বাড়ির কাছে মসজিদে না গিয়ে দূরের মসজিদে নামাজ পাঠ সেরে ফিরছিলেন খেতে। শোয়েবের অভিযোগ, হঠাৎ পুলিশ সেখানে লাঠিচার্জ এবং টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটাতে শুরু করে। গন্ডগোলের মাঝখানে পড়ে যান সুলেমান আর তখনই পুলিশ তাঁকে লক্ষ্য করে সরাসরি গুলি চালায়।

গত ১২ ডিসেম্বর ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের পর থেকেই দেশটির বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ চলছে। এসব বিক্ষোভে মালাউন সন্ত্রাসীদের বর্বরতায় অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে শুধু উত্তর প্রদেশেই নিহত হয়েছে ১৫ জন।

 

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন