রেলের ভাড়া ও গ্যাসের দাম বাড়িয়ে নববর্ষের উপহার দিল সন্ত্রাসী মোদি

0
672
রেলের ভাড়া ও গ্যাসের দাম বাড়িয়ে নববর্ষের উপহার দিল সন্ত্রাসী মোদি

নববর্ষে সন্ত্রাসী মোদি সরকারের  উপহার হল, রেলের বিপুল ভাড়া, ও গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি।

ভারতীয় গণমাধ্যম আজকাল সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার, ৩১ ডিসেম্বর রেলমন্ত্রক রেলের ভাড়া বৃদ্ধির  নির্দেশিকা জারি করেছে। এদিন মধ্যরাত থেকে চালু হবে নতুন মাশুল। লোকাল ট্রেন ছাড়া অন্য সমস্ত ট্রেনে যাত্রা করার জন্যই বাড়তি ভাড়া দিতে হবে যাত্রীদের। সাধারণ নন এসি ট্রেনের ক্ষেত্রে প্রতি কিলোমিটারে বাড়বে এক পয়সা করে। এছাড়া নন এসি, মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেনের ক্ষেত্রে কিলোমিটার প্রতি ২ পয়সা করে ভাড়া বাড়তে চলেছে। এসি ট্রেনের ক্ষেত্রে প্রতি কিলোমিটারে বাড়বে চার পয়সা করে। রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান বিনোদ কুমার যাদব সোমবার বলেছিল, আপাতত, রেলমন্ত্রক পণ্যবাহী ট্রেন বা যাত্রীবাহী ট্রেনের ভাড়া বাড়ানোর কোনওরকম পরিকল্পনা করছে না। কিন্তু সেই ঘোষণাকে মিথ্যে প্রমাণ করে মঙ্গলবারই বাড়িয়ে দেওয়া হল ভাড়া। ১ জানুয়ারি থেকে বাড়তি ভাড়াতেই টিকিট কাটতে হবে। রাজধানী, শতাব্দী, দুরন্ত, বন্দে ভারত, তেজস, হমসফর, গরীব রথ, জন শতাব্দী সহ আরও স্পেশাল ট্রেনের ভাড়া নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী বাড়ানো হবে।

নতুন বছরে মোদি সরকারের আরেকটি উপহার হল গ্যাসের দামবৃদ্ধি। এক্সপ্রেস ও প্যাসেঞ্জার ট্রেনের ভাড়া বাড়ার পর বাড়ল ভর্তুকিহীন এলপিজি বা রান্নার গ্যাসের দামও। ১ জানুয়ারি, ২০২০ থেকেই কার্যকর করা হয়েছে রান্নার গ্যাসের নতুন দাম। এই নিয়ে পাঁচবার মাসিক মূল্যবৃদ্ধি হল রান্নার গ্যাসের।
ইন্ডেন ব্র্যান্ডের অধীনে এলপিজি সরবরাহকারী ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন অনুযায়ী, দিল্লি ও মুম্বইয়ে সিলিন্ডার পিছু দাম যথাক্রমে ১৯ টাকা এবং ১৯.৫ টাকা করে বেড়েছে। ১ জানুয়ারি থেকে ভর্তুকিহীন এলপিজির দাম দিল্লিতে সিলিন্ডার পিছু বেড়ে হল ৭১৪ টাকা এবং মুম্বইয়ে সিলিন্ডার পিছু বেড়ে হল ৬৮৪.৫০ টাকা। ডিসেম্বর মাসে সিলিন্ডারের দাম ছিল যথাক্রমে ৬৯৫ টাকা এবং ৬৬৫ টাকা।
এদিকে কলকাতা এবং চেন্নাইতে ভর্তুকিহীন এলপিজি গ্যাসের দাম সিলিন্ডার পিছু যথাক্রমে ২১.৫ টাকা এবং ২০ টাকা করে বেড়েছে। প্রতি সিলিন্ডার তা বেড়ে হল যথাক্রমে ৭৪৭ টাকা এবং ৭৩৪ টাকা। ১ ডিসেম্বর থেকে ১৯ কেজি সিলিন্ডারের দামও দিল্লিতে ইউনিট প্রতি বেড়ে ১,২৪১ টাকা এবং মুম্বইয়ের ১,১৯০ টাকায় দাঁড়িয়েছে ইন্ডিয়ান অয়েল অনুসারে।
অন্যদিকে এলপিজির দাম (প্রতি ১৪.২ কিলোগ্রাম) আগস্টের পর থেকে এখনও পর্যন্ত দিল্লিতে সিলিন্ডার প্রতি ১৩৯.৫ টাকা এবং মুম্বইয়ের সিলিন্ডার প্রতি ১৩৮ টাকা করে বেড়েছে। এই বৃদ্ধির হার যথাক্রমে ২৪.২৮ শতাংশ এবং ২৫.২৫ শতাংশ।

এদিকে, অর্থনৈতিক মন্দা চলছে দেশজুড়ে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি সাধারণ মধ্যবিত্তের কপালে ভাঁজ ফেলেছে। তার মাঝে নতুন বছরে কোনও আশার আলো দেখাতে পারেনি মোদি সরকার। উল্টে বছরের প্রথমদিনেই বাড়িয়ে দেওয়া হল ট্রেনের ভাড়া, ও গ্যাসের দাম। মোদি কবলে, কোথায় যাবেন দেশের মানুষ?‌

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন