গোলানে ইসরায়েলি দখলদারিত্বে ট্রাম্পের নীতিতে বাইডেনও

0
347
গোলানে ইসরায়েলি দখলদারিত্বে ট্রাম্পের নীতিতে বাইডেনও

অধিকৃত গোলান মালভূমিকে ইসরায়েলের অংশ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার কাছাকাছি গিয়েও থেমে গেছে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিংকিন। তবে ওই ভূখণ্ডটি ইসরায়েলিদের নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছে এই ক্রুসেডার।

অর্থাৎ ওই ভূখণ্ডে ইসরায়েলের অবৈধ দখলদারিত্বে সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের স্বীকৃতি থেকে সরে আসছে না তার উত্তরসূরি জো বাইডেনও।

২০১৯ সালে ওই মালভূমিকে ইসরায়েলের অংশ হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দিয়েছে ক্রুসেডার ট্রাম্প।

১৯৬৭ সালের মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধে সিরিয়ার কাছ থেকে ওই অঞ্চলটি দখল করে নেয় ইসরায়েল।

পরে ১৯৮১ সালে নিজেদের ভূখণ্ডের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণা দেয় অবৈধ ইহুদি রাষ্ট্রটি। যদিও আন্তর্জাতিকভাবে এখন পর্যন্ত তেমন স্বীকৃতি মেলেনি।

সিএনএনকে ব্লিংকিন বলেন, বাস্তবতার নিরিখে এই পরিস্থিতিতে গোলান মালভূমির নিয়ন্ত্রণ ইসরায়েলের নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আর বৈধতার প্রশ্ন ভিন্ন কিছু। ধীরে ধীরে সিরিয়ার পরিস্থিতিতে যদি পরিবর্তন আসে, যা আমরা দেখতে পাচ্ছি। কিন্তু আমরা এসব কিছু ধারে-কাছে নেই।

আর গোলান মালভূমিতে ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বের স্বীকৃতি থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরে আসবে না বলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের উপদেষ্টা জানিয়েছিল।

জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস রাখার পক্ষেও বাইডেন প্রশাসনের প্রতিশ্রুতির কথা পুনর্ব্যক্ত করে অ্যান্থনি ব্লিংকিন।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন