সাইবার হামলায় বন্ধ হয়ে গেছে শীর্ষ মার্কিন তেল পাইপলাইন অপারেটর

1
1091
সাইবার হামলায় বন্ধ হয়ে গেল শীর্ষ মার্কিন তেল পাইপলাইন অপারেটর

সাইবার হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ তেল পাইপলাইন অপারেটর কলোনিয়াল পাইপলাইন তাদের সব নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দিয়েছে। শুক্রবার এক বিবৃতিতে কোম্পানিটি এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্সের।

কলোনিয়াল অপারেটর যুক্তরাষ্ট্রের উপসাগরীয় অঞ্চলের তেল শোধনাগারগুলো থেকে জনবহুল পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে তেল সরবরাহ করে। কোম্পানিটি সাড়ে ৫ হাজার দীর্ঘ পাইপলাইন থেকে দৈনিক ২৫ লাখ ব্যারেল গ্যাসোলিন, ডিজেল, জেট বিমানের জ্বালানি ও অন্যান্য শোধনকৃত দ্রব্য সরবরাহ করে।

কোম্পানিটির দেয়া তথ্যমতে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলীয় অঞ্চলে ৪৫ শতাংশ জ্বালানি সরবরাহ করে।

কলোনিয়াল অপারেটরের বিবৃতিতে বলা হয়, তারা শুক্রবার এই সাইবার হামলা সম্পর্কে জানতে পারে। এরপর সতর্কতা হিসেবে সিস্টেম বন্ধ করে দেয়া হয়। এর ফলে তাদের কার্যক্রম সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয় এবং কোম্পানির কিছু তথ্যপ্রুযুক্তি সিস্টেমে এর প্রভাব পড়ে।

কতদিন পর্যন্ত পাইপলাইনের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি কলোনিয়াল।

এর আগে শুক্রবার রয়টার্স জানায়, কলোনিয়াল অপারেটর তাদের মূল গ্যাসোলিন ও জ্বালানি শোধনকারী লাইনগুলো বন্ধ করে দিয়েছে।

পাইপলাইন বন্ধের ফলে যুক্তরাষ্ট্রের উপসাগরীয় অঞ্চলে গ্যাসোলিন ও ডিজেলের দাম কমেছে। অন্য দিকে নিউ ইয়র্কে জ্বালানির দাম বেড়ে গেছে। শুক্রবার নিউ ইয়র্কে গ্যাসোলিনের দাম ০.৬ শতাংশ ও ডিজেলের দাম ১.১ শতাংশ বেড়েছে।

কত সময় পর্যন্ত পাইপলাইন বন্ধ থাকবে তার ওপর নির্ভর করছে জ্বালানির দামে দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব পড়বে কিনা। যদি পাইপলাইন বন্ধ চলতে থাকে তাহলে উপসাগরীয় অঞ্চলে তেলের দাম আরও কমবে কিন্তু নিউ ইয়র্কে দাম বাড়বে।

এর আগে ২০১৭ সালে হারিকেন হার্ভি যুক্তরাষ্ট্রের উপসাগরীয় অঞ্চলে আঘাত হানার ফলে কলোনিয়াল অপারেটরের গ্যাসোলিন ও শোধনকারী পাইপলাইনগুলো বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সেসময় উপসাগরীয় অঞ্চলে গ্যাসোলিনের দাম পাঁচ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেড়ে যায় আর ডিজেলের দাম বেড়েছিল চার বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন