ইসরাইল সর্বোচ্চ আঞ্চলিক শক্তিতে পরিণত হোক, প্রত্যাশা আরব আমিরাতের

0
857
ইসরাইল সর্বোচ্চ আঞ্চলিক শক্তিতে পরিণত হোক, প্রত্যাশা আরব আমিরাতের

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রীয়দূত প্রত্যাশা করেন, দখলদার ও অভিশপ্ত ইসরাইল যেন মধ্যপ্রাচ্যের সর্বোচ্চ আঞ্চলিক শক্তিতে পরিণত হয়!

দখলদার ইসরাইলের সর্বাধিক বর্ণবাদী দলের সাথে সাক্ষাৎকালে ইসরাইলে নিযুক্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাস্ট্রীয়দূত মুহাম্মাদ আল খাজা জারজ রাষ্ট্রটি সম্পর্কে এমন আশা পোষণ করে।

ফিলিস্তিন ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম কুদস নিউজ নেটওয়ার্ক জানায়, ইসরাইলি রাষ্ট্রীয় “কান চ্যানেলে” প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রীয়দূতকে ইসরাইলের উগ্র ডানপন্থী “শাস” দলের নেতার সাথে পারস্পরিক সাক্ষাৎকারে দেখা গেছে।

ইহুদীদের পরম মিত্র এই খাজা বলে,”যখন আমি ইসরাইলে এসেছি, আমি ইসরাইলিদের দেখে মুগ্ধ হয়েছি।… তারা উষ্ণ মনের মানুষ। আমি ইসরাইলের প্রাণকেন্দ্র তেলআবিবে মসজিদ দেখতে পাবো, আশাই করিনি।

যদিও বিশ্লেষণধর্মী “তায়াক্কুন ফ্যাক্ট চেক প্লাটফর্ম” সংযুক্ত আরব আমিরাতের উর্ধতন এই কূটনীতিকের এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্যকে “বিভ্রান্তিকর তথ্য” হিসাবেই শ্রেনিবদ্ধ করেছে।

আদতে তেলআবিবে মুসলিমদের কোন মসজিদই আর অবশিষ্ট নেই।
তাই রাষ্ট্রদূতের দেখা মসজিদটি অবরুদ্ধ জাফফার বাস্তুচ্যুত শহর মানশিয়্যাহের “হাসান বেক মসজিদ” হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হাসান বেক মসজিদটি মুসলিম অধ্যুষিত ফিলিস্তিনেরই অংশ, যা ১৯৪৮ সালের আন্দোলনের পর সামান্য কিছু অবকাঠামো এখনো টিকে আছে।

দখলদার ইসরাইলি প্রশাসন ৪০ বছর পূর্বেই মসজিদটি ধ্বংসের আদেশ দিয়েছিল, যা স্থানীয় মুসলিমিদের তীব্র প্রতিবাদের কারণে সামান্যই রক্ষা পায়।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন