বিজয়ের মাসে সোমালিয়ার গুরুত্বপূর্ণ ২টি শহরের নিয়ন্ত্রণ নিল আশ-শাবাব

ত্বহা আলী আদনান

2
1242
বিজয়ের মাসে সোমালিয়ার গুরুত্বপূর্ণ ২টি শহরের নিয়ন্ত্রণ নিল আশ-শাবাব

পূর্ব আফ্রিকা ভিত্তিক জনপ্রিয় ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিন তীব্র এক লড়াইয়ের পর দেশটির ওয়ারম্যাক্সান শহরের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন।

প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাবের সামরিক কমান্ডের এক বিবৃতি অনুসারে, আজ ১৫ এপ্রিল শুক্রবার সকালে সোমালিয়ার গুরুত্বপূর্ণ শহর ওয়ারম্যাক্সানে ভারী অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছিলেন মুজাহিদগণ। এসময়কার দেশটির পশ্চিমা সমর্থিত সামরিক বাহিনীর সাথে তীব্র এক লড়াই সংঘটিত হয় প্রতিরোধ যোদ্ধাদের।

তবে শেষ পর্যন্ত ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাবের বীর যোদ্ধাদের তীব্র হামলার সামনে টিকতে না পেরে পিছু হটতে বাধ্য হয় মোগাদিশু কেন্দ্রীক সোমালি সরকারি বাহিনী।

আশ-শাবাব সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, গাদ্দার সামরিক বাহিনীর সদস্যরা পালানোর আগে ও পরে হারাকাতুশ শাবাবের হামলায় প্রচুর সংখ্যক হতাহতের শিকার হয়েছে। বেশ কিছু সৈন্যকে বন্দীও করতে সক্ষম হয়েছেন মুজাহিদগণ।

শহরটি শত্রুমুক্ত করার পর আশ-শাবাব মুজাহিদিন জনসমক্ষে বাসিন্দাদের সাথে কথা বলছেন। এসময় তাঁরা জনগণের সমস্যার কথা শুনেছেন এবং এর প্রতিকারের উপায় নিয়েও আলোচনা করেছেন।

একই দিন বিকেলে আশ-শাবাব যোদ্ধারা শাবেলি রাজ্যের ওয়ার্মহান জেলায় তীব্র হামলা চালিয়েছেন। এসময় তাঁরা জেলাটির আশাপাশের এলাকায় ৩ ঘন্টা যাবৎ অভিযান চালান। যার লক্ষ্য ছিল সেনাদেরকে বিভিন্ন ময়দানে ব্যস্ত করে রাখা। আর এই সুযোগে কেন্দ্রীয় শহর থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরের কৌশলগত ‘শারী’ শহরে হামলা করে বসে আশ-শাবাবের অন্য একটি ইউনিট। মাত্র আধা ঘণ্টার লড়াইয়ের মাধ্যমে হারাকাতুশ শাবাব যোদ্ধারা সরকারি বাহিনীকে নাস্তানাবুদ করেন এবং শহরটির উপর নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেন।

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন