আল-শাবাবের নিয়ন্ত্রণে আরও একটি কৌশলগত শহর

ত্বহা আলী আদনান

6
999

সোমালিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে মোগাদিশু প্রশাসনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো আশ-শাবাব। সামরিক বাহিনীর দখলে থাকা কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর ও ২টি সামরিক ঘাঁটির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে প্রতিরোধ যোদ্ধারা।

ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী আল-কায়েদার পূর্ব আফ্রিকান শাখা খ্যাত হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিন গত ২৩ জুলাই সোমালিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় বে রাজ্যের কৌশলগত গোফ গাদুদ শহরের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন। শহরটি বে রাজ্যের কেন্দ্রীয় বাইদোয়া শহর থেকে মাত্র ৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত, সেটিও আবার গত ১১ জুলাই থেকেই অবরোধ করে রেখেছেন শাবাব মুজাহিদিন।

আঞ্চলিক সূত্র জানায় যে, শাবাব যোদ্ধারা এদিন প্রথমে শহরে সরকারি বাহিনীর দুটি সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে একযোগে ব্যাপক অভিযান পরিচালনা করেন। এতে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয় সোমালি সেনারা, অবশেষে ঘাঁটিগুলো ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয় তারা। সেনাদের এই পলায়নের মধ্য দিয়ে পুরো ঘাঁটি দুইটি সহ পুরো শহরটির আশ-শাবাবের নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।

এদিকে শহরটি পুনর্দখলের লক্ষ্য ভারী অস্ত্র সজ্জিত সোমালি সেনাদের একটি কনভয় শহরটির দিকে অগ্রসর হওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু পথিমধ্যেই তারা শাবাবের অতর্কিত আক্রমণের শিকার হয়। সেখানে তাদের ২টি সাঁজোয়া যান ধ্বংস হয়ে যায়, ফলে বহু সংখ্যক সৈন্য হতাহত হয়। আর বেঁচে থাকা ও আহত সৈনিকরা আগের মতোই পালিয়ে যায়।

আশ-শাবাব তাদের এই পদক্ষেপের মাধ্যমে প্রাদেশিক রাজধানী বাইদোয়া শহরের এক ধাপ কাছাকাছি চলে এসেছে। শাবাব যোদ্ধারা বর্তমানে প্রাদেশিক রাজধানীর আশেপাশের গ্রামাঞ্চল এবং রাস্তাগুলির নিয়ন্ত্রণ করছে, যেখানে এক মিলিয়নেরও বেশি জনগণ বসবাস করেন।

এটি লক্ষণীয় যে, আল-শাবাব সাম্প্রতিক মাসগুলিতে এই অঞ্চলে তাদের শক্তি এবং আক্রমণ বাড়িয়েছে। এভাবে পশ্চিমা সমর্থিত মোগাদিশু সরকারী বাহিনীকে কেন্দ্রীয় এলাকার আরও ভেতরের দিকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য করছেন তাঁরা।

6 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধব্রেকিং || মোগাদিশুর সামরিক কেন্দ্রে শহিদি হামলায় হতাহত ১৯৭ সেনা
পরবর্তী নিবন্ধআদর্শ ও সুস্থ সমাজ গঠনে তালিবানের ভূমিকা পশ্চিমা মিডিয়ায় উপেক্ষিত