ফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ১৪ জানুয়ারি, ২০২৪

- সাইফুল ইসলাম

0
202
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

রবিবারে দখলীকৃত পশ্চিম তীরে দখলদার বাহিনীর তিনটি হামলায় ৫ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র বলেছেন, গাজায় বাকি থাকা ইসরায়েলি বন্দীদের ভাগ্য সাম্প্রতি সপ্তাহগুলোতে অনিশ্চিত হয়ে গেছে।

গাজায় দুই দিনেরও বেশি সময় ধরে ইন্টারনেট বন্ধ রয়েছে। এ কারণে অনেক ফিলিস্তিননিরা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছেন।

গাজায় বন্দী থাকা ১৩৬ ইসরায়েলির মুক্তির দাবিতে তেলআবিবে ২৪ ঘণ্টা ধরে বিক্ষোভ করেছে ইসরায়েলিরা।

ইসরায়েলের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী, ২০২৫ সালের আগ পর্যন্ত গাজা যুদ্ধে ইসরায়েল ৫৪ বিলিয়ন ডলার খরচ করবে।

দখলদার ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যোদ্ধাদের যুদ্ধের ১০০ দিন অতিক্রান্ত হয়েছে। এই ১০০ দিনে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর উপর ব্যাপক হামলা চালিয়েছেন ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ যোদ্ধারা। যুদ্ধের ১০০তম দিনে আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু উবাইদাহ বলেন, গত ১০০ দিনে আল-কাসসাম ব্রিগেড ১০০০ ইসরায়েলি সামরিক যানে হামলা করেছেন এবং এগুলোকে নষ্ট করে দিয়েছেন।

১৪ই জানুয়ারি, আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ দখলদার বাহিনীর একটি মারকাভা ট্যাংকে হামলা চালিয়েছেন। এরপর জায়োনিস্ট স্পেশাল বাহিনীর সাথে মেশিনগান দিয়ে যুদ্ধ করেছেন।

বুরেইজ ক্যাম্পে অনুপ্রবেশকারী শত্রু বাহিনীর উপর মর্টার হামলা চালিয়েছেন।

খান ইউনিসে দখলদার সৈন্য ও সামরিক যানের সমাবেশে মর্টার হামলা চালিয়ে ধ্বংস করেছেন।

দখলীকৃত আশদুদ শহরে দখলদারদের উপর মাকাদমা এম৭৫ রকেট নিক্ষেপ করেছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

খান ইউনিস শহরের দক্ষিণে একদল জায়োনিস্ট পদাতিক বাহিনীর উপর অ্যান্টি পার্সনেট মিসাইল দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ। এতে দখলদার সেনাদের মধ্যে নিহত ও আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধভিডিও || খান ইউনিসে দখলদার জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর আল-কাসসাম ব্রিগেডের আক্রমণ
পরবর্তী নিবন্ধইসলামি শরিয়াহ আইন ও দণ্ডবিধির বাস্তবায়ন: সামাজিক স্থিতিশীলতার একমাত্র পথ