ভারতে কন্যাসন্তানকে ছাদ থেকে ফেলে ও মাটিচাপা দিয়ে হত্যা!

0
113

কন্যাসন্তান হওয়াই যেন ‘অপরাধ’। আর তার জেরে প্রাণ গেল সাতদিনের দুধের শিশুর। ছাদ থেকে ছুড়ে ফেলে হত্যা করা হলো এক শিশুকে।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার রাতে ব্যাঙ্গালোরে মেদারাল্লি এলাকায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে।

ওই শিশটির মা জানান, শাশুড়ির কাছে মেয়েকে রেখে গোসল করতে গিয়েছিলেন তিনি। ফিরে এসে আর মেয়ের দেখা পাননি। তা নিয়ে প্রশ্ন করলে শাশুড়ি জানান, কিছু লোক জোর করে বাড়িতে ঢুকে পড়েছিল। তারাই শিশুটিকে কেড়ে নিয়ে গেছে। 

এই ঘটনা শুনার পর সন্দেহ হয় তামিলসেলভি। তাই তিনি পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তল্লাশি শুরু করলে, বাড়ির সংলগ্ন একটি খালি জায়গায় শিশুটির মরদেহ পায়। তার মাথায় গভীর ক্ষত ছিল। তা নিয়ে চেপে ধরতেই অপরাধ স্বীকার করে পরমেশ্বরী।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ব্যাঙ্গালোরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে সময়ের আগেই সন্তানপ্রসব করেন তামিলসেলভি। জন্মের পরই জন্ডিস ধরা পড়ে তার। কন্যাসন্তান হওয়ায় এমনিতেই অসন্তুষ্ট ছিলেন পরমেশ্বরী। শেষমেশ তাকে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় বলে অভিযোগ।

এমনিভাবে, ভারতীয় সংবাদমাধ্যম অমৃতবাজার সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজ্যের সুনদারেসাপুরাম গ্রামে থেনপেন্নাই নদীর তীরে একটি গর্ত খুঁড়ে একটি শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় শিশুটির বাবা বরধরাজনকে(২৯)

শিশুটির মায়ের দেয়া তথ্য থেকে জানা যায়, ১৭ দিন আগে পন্ডিচেরি হাসপাতালে একটি কন্যাশিশুর জন্ম দেয়। তখন থেকেই শিশুটিকে মেরে ফেলার চেষ্টা করছে পুত্রপাগল বরধরাজন। কন্যা জন্ম দেয়ায় সে তার ওপর মানসিক নির্যাতনও চালিয়েছে

শিশুটির বয়স যখন তিনদিন, তখনই একবার তাকে হত্যার চেষ্টা করে বরধরাজন। ওই সময় স্বজনদের চোখে পড়ে যাওয়ায় সে পালিয়ে যায়

পরে মঙ্গলবার শিশুটির মা ঘুমিয়ে পড়লে নবজাতকটিকে চুরি করে নদীর তীরে চলে যায় বরধরাজন

সকালে ঘুম থেকে ওঠে বাচ্চাটিকে দেখতে না পেয়ে চিৎকার জুড়ে দেন মা। পুলিশকে খবর দিলে তল্লাশি চালিয়ে বরধরাজনকে আটক করা হয়। তার দেয়া তথ্যতেই নদীতীরে গর্ত খুঁড়ে উদ্ধার করা হয় বাচ্চাটির নিথর দেহ
শিশুটির মরদেহ উদ্ধারের পর শোকের ছায়া নেমে এসেছে গ্রামটিতে।এর আগে ৩১ অক্টোবর হায়দ্রাবাদে মেয়ে নবজাতককে জীবন্ত অবস্থায় মাটিচাপা দেয়ার সময় তার বাবা দাদাকে আটক করা হয়। একই ধরনের ঘটনায়, ১৪ অক্টোবর দেশটির উত্তর প্রদেশ থেকে আরও এক বাবাকে আটক করা হয়

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন