খোরাসান | কাবুল বাহিনীর উপর হামলার তীব্রতা বাড়িয়েছে তালেবান, নিহত ৭৭ এরও বেশি

3
1111
খোরাসান | কাবুল বাহিনীর উপর হামলার তীব্রতা বাড়িয়েছে তালেবান, নিহত ৭৭ এরও বেশি

একেরপর এক মার্কিন বাহিনীর চুক্তি লঙ্ঘনের পর কাবুল বাহিনীর উপর হামলার তীব্রতা বাড়িয়েছে তালেবান। তালেবানের ৯ হামলাতেই নিহত ৭৭ এরও অধিক কাবুল সৈন্য।

তালেবান সূত্রগুলো জানায়, আজ ২০ এপ্রিল দুপুর ২টার সময়, হেরাত প্রদেশের ঘোরিয়ানা জেলায় মুরতাদ কাবুল সরকারের একটি সামরিক কেন্দ্রে গাড়ি বোমা হামলা চালিয়েছেন একজন তালেবান মুজাহিদ, যার ফলে সামরিক কেন্দ্রটি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়। এপর অন্যান্য মুজাহিদগণ সামরিক সেন্টারে ঢুকে কাবুল সৈন্যদের হত্যা করতে থাকেন। অভিযান শেষে গাড়ি বোমা হামলাকারী মুজাহিদ ও অন্যান্যরা নিরাপদে ফিরে আসেন।

তালেবানদের সামরিক মুখপাত্র ক্বারী ইউসুফ আহমাদী জানান, এতে কাবুল বাহিনীর ২০ পুতুল সৈন্য নিহত হয়েছে, আহত হয়েছে আরো অনেক সৈন্য। মুজাহিদদের হামলায় ধ্বংস হয়েছে কাবুল বাহিনীর যানবাহন, যুদ্ধ সরঞ্জামাদি এবং অনেক গোলা-বারুদ।

এরপর নানগার প্রদেশের শেরজাদ জেলার গাঁদমাক-দাগ, পেটলো ও গন্ডমাক এলাকায় কাবুল বাহিনীর একাধিক চৌকিতে হামলা চালিয়েছেন মুজাহিদগণ। যার ফলে কাবুল বাহিনীর ১২ সৈন্য নিহত এবং আরো ডজনখানেক সৈন্য আহত হয়েছে। মুজাহিদগণ ধ্বংস করেছেন মুরতাদ বাহিনীর ২টি গাড়ি ও ৩টি সামরিক চৌকি।

এমনিভাবে তালেবান নিয়ন্ত্রিত লঘমান প্রদেশের আলিশাং জেলার কোটালি এলাকায় একদল পুতুল সৈন্য তালেবানদের তীব্র হামলার শিকারে পরিণত হয়। হামলার কারণ হিসাবে জানা যায়, এসব সৈন্যরা এই এলাকায় নতুন পোস্ট স্থাপন করতে এসেছিল। যার ফলে তালেবানদের হামলার শিকারে পরিণত হয়। এসময় ৯ মুরতাদ সৈন্য নিহত এবং আরো ৭ মুরতাদ সৈন্য আহত হয়েছে। মুজাহিদগণ ধ্বংস করেছেন মুরতাদ বাহিনীর ২টি সাঁজোয়া যান। শেষ পর্যন্ত কাবুল বাহিনী মুজাহিদদের হাতে চরম মাইর খেয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।

অপরদিকে আজ ভোরে হেলমান্দ প্রদেশের গারিশাক জেলায় কাবুল বাহিনীর একটি পুলিশ চৌকিতে লেজার অস্ত্র দিয়ে হামলা চালান মুজাহিদগণ। এতে কমপক্ষে ৬ মুরতাদ সৈন্য নিহত হয়। একেই প্রদেশের কারশাক এলাকায় দুপুর ১২টায় কাবুল বাহিনীর উপর আরো ১টি হামলা চালান মুজাহিদগণ। যার ফলে এখানেও আরো ৬ মুরতাদ সৈন্য নিহত হয়।

এদিকে বাগালান প্রদেশের মধ্য বাঘলান জেলায় রাস্তার পাশে স্থাপিত কাবুল বাহিনীর একটি চেকপোস্টে সশস্ত্র হামলা চালিয়েছেন মুজাহিদগণ। অভিযানের মাধ্যমে মুজাহিদগণ চেকপোস্টটি সম্পূর্ণরূপে বিজয়ী করেনেন। এসময় মুজাহিদগণ হত্যা করেন কাবুল বাহিনীর ৬ ভাড়াটে সৈন্যকে। মুজাহিদগণ ধ্বংস করেন ১ টি ট্যাঙ্ক। গনিমত লাভ করেন ১টি ট্যাঙ্ক ২টি পিকআপ, ২ টি মেশিনগান, ২ টি ক্লাশিনকোভ এবং অনেক গোলাবারুদ।

একইভাবে এদিন নানগারহার প্রদেশের আরওয়ান্দ এলাকা, লোঘার প্রদেশের খোগিয়ান ও গজনী প্রদেশের শালগার জেলায় মুরতাদ কাবুল বাহিনীর বিরুদ্ধে আরো ৩টি পৃথক হামলা চালিয়েছেন তালেবান মুজাহিদিন। এতে ১১ মুরতাদ সৈন্য নিহত এবং ১৩ এরও অধিক মুরতাদ সৈন্য আহত হয়েছে।

IMG-20210420-071313

IMG-20210420-214017-649
IMG-20210420-214014-693
IMG-20210420-214013-065
IMG-20210420-214021-209
IMG-20210420-214023-794

3 মন্তব্যসমূহ

  1. আলহামদুলিল্লাহ…..
    প্রিয় তালেবান ভাইয়েরা হামলার ডোজটা আরো বাড়িয়ে দিন, কেননা এরা বরাবরই চুক্তি লঙ্ঘন করে যাচ্ছে ।।

    হে আল্লাহ! তুমি সারাবিশ্বের মুজাহিদীন ভাইদের সুস্হতা এবং নিরাপত্তা দান করো ।
    এবং আল-ফিরদাউস মিডিয়ার সকল ভাইদেরকে সুস্হতা এবং নিরাপত্তা দান করো এবং ভাইদেরকে তোমার দ্বীনের জন্য কবুল কর ।
    আমিন….ছুম্মা আমিন……

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন