খোরাসান | বাগলানে তালিবানের হামলায় ৮৬ কাবুল সৈন্য হতাহত, আত্মসমর্পণ আরো ২৩৩ সেনার

3
999
খোরাসান | বাগলানে তালিবানের হামলায় ৮৬ কাবুল সৈন্য হতাহত, আত্মসমর্পণ আরো ২৩৩ সেনার

আফগানিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশ বাগলানের সিংহভাগ অঞ্চল নিয়ন্ত্রণে নিয়েছেন তালিবান। এখন সেন্ট্রাল বাগলান শহর বিজয়ের লক্ষ্যে তীব্র লড়াই চলছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ইমারতে ইসলামিয়া আফগানিস্তানের জানবায তালিবান মুজাহিদিন গতকাল (৬ মে) বিকেলে মধ্য বাঘলান প্রদেশের কেন্দ্রীয় বাঘলান জেলার শাহ-এ-কোহনা এলাকায় মুরতাদ কাবুল বাহিনীর পোস্ট এবং সামরিক কেন্দ্রগুলিতে তীব্র আক্রমণ চালিয়েছেন।

আল-ফাতাহ অপারেশন চলাকালীন তালিবান মুজাহিদিন কান্ডাক এবং মশকো হিল ২টি ঘাঁটি পুরোপুরি জয়লাভ করেছেন। এসময় জীবন বাঁচাতে ভাড়াটে কমান্ডার ইকরামউদ্দিনসহ ৩৩ কাবুল সৈন্য তালিবান যোদ্ধাদের কাছে আত্মসমর্পণ করে। মুজাহিদগণ কাবুল বাহিনী থেকে ৬টি ট্যাঙ্ক, ৫০টি ভারী অস্ত্র এবং প্রায় ৪০০ এরও বেশি অন্যান্য অস্ত্র গনিমত লাভ করেন।

এছাড়াও এদিন সকালে, মোহাম্মদউল্লাহ চেকপোস্ট, সাঈদ কামাল ওয়ার্ডাক বেস এবং কোহনা কালা ঘাঁটিসহ বাগলানের ৫টি সামরিক ঘাঁটি ও ১৩টি চেকপোস্ট সম্পূর্ণরূপে বিজয় করেন তালিবান মুজাহিদগণ। এসময় তালিবান মুজাহিদদের হামলায় কমান্ডার সহ ৬৫ সৈন্য নিহত এবং ২১ সৈন্য আহত হয়। মুজাহিদগণ ৩১ টি ক্লাশিনকোভ, ৬টি পিস্তল, ৩টি নাইট ভিশন দুর্বিন, ১টি মর্টার, ৩টি হামভি ট্যাঙ্কসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ গনিমত লাভ করেন।

এমনিভাবে মুজাহিদগণ কোহনা কালা ঘাঁটি রক্ষাকারী চৌকিতে হামলা চালিয়ে তা জয় করেন। এসময় মুজাহিদদের হামলায় ভাড়াটে কমান্ডার ফিরোজসহ ৬ মুরতাদ সৈন্য নিহত হয়। মুজাহিদগণ গনিমত লাভ করেন ২টি মেশিনগান, ৫টি ক্লাশিনকোভ এবং ১টি রেঞ্জার গাড়ি।

এছাড়াও, মুজাহিদগণ কেন্দ্রীয় বাঘলানের কৌশলগত পুরাতন বাজারে প্রবেশ করেন এবং তা শত্রু মুক্ত করেন। মুজাহিদগণ ১টি ট্যাঙ্ক, ২টি রেঞ্জার গাড়িসহ অনেক গোলাবারুদ গনিমত লাভ করেন।

অপরদিকে তালিবান মুজাহিদগণ বিকাল হতেই বাগলান প্রদেশের সেন্ট্রাল বাগলান জেলার কেন্দ্রে হামলা চালাতে শুরু করেছেন। মুজাহিদগণ ইতিমধ্য জেলার বেশিরভাগ অঞ্চল কাবুল বাহিনীর হাত থেকে সাফ করতে সক্ষম হয়েছেন।

মুজাহিদদের হামলার তীব্রতা থেকে বাঁচতে শহরটির গুরুত্বপূর্ণ ৩ কমান্ডারসহ ২০০ কাবুল সেনা ও পুলিশ সদস্য তালিবান মুজাহিদদের কাছে আত্মসমর্পন করেছে। এসময় আত্মসমর্পনকারী কাবুল সৈন্যরা শহরটি রক্ষায় মুরতাদ বাহিনীকে দেওয়া অধিকাংশ ট্যাঙ্ক ও অন্যান্য সামরিক যানবাহন, হালকা ও ভারী অস্ত্র এবং কয়েক হাজার গোলাবারুদ মুজাহিদিনের হাতে হস্তান্তর করেছে।

3 মন্তব্যসমূহ

  1. আলহামদুলিল্লাহ…..
    হে উম্মতে মুহাম্মাদী!! বিজয়ের সুসংবাদ গ্রহণ করুন ।

    হে আল্লাহ! তুমি সারাবিশ্বের মুজাহিদীন ভাইদেরকে ক্ষমা করে দাও এবং ভাইদেরকে সুস্হতা এবং নিরাপত্তা দান করো ।
    হে আল্লাহ! তুমি আল-ফিরদাউস মিডিয়ার সকল ভাইদেরকে ক্ষমা করে দাও এবং ভাইদেরকে সুস্হতা এবং নিরাপত্তা দান করো এবং ভাইদের কাজে ইখলাস ও বারাকাহ দান করো । আমিন ইয়া রব্বাল আলামীন

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন