ব্রেকিং নিউজ | সোমালিয়ায় মার্কিন অভিযান ব্যার্থ করে দিলো আশ-শাবাব: ১৫ সেনা হতাহত

0
1439
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় পূণরায় দখলদার মার্কিন সামরিক বাহিনী ও আশ-শাবাবের মধ্যে ভারী লড়াই শুরু হয়েছে। এবং পশ্চিমাদের একটি যৌথ সামরিক অভিযানও প্রতিহত করেছে আশ-শাবাব। যাতে অন্তত ৮ সৈন্য নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

আঞ্চলিক সূত্রে জানা গেছে, গত ৩ জুন শুক্রবার দুপুরের কিছুক্ষণ পরে, সোমালিয়ার পশ্চিম কিসমায়ো শহরে বোমা বিস্ফোরণের সাথে সাথে ভারী লড়াইয়ের ঘটনা ঘটেছে। যা কয়েক ঘন্টা ধরে চলমান ছিলো।

সূত্র মতে, কিসমায়ো শহরের ইয়াক হালুল এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। যা আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাবের নিয়ন্ত্রিত একটি এলাকা ছিলো। মূলত এলাকাটি দখল করতে গত বৃহস্পতিবার থেকেই মরিয়া হয়ে উঠেছে পশ্চিমা শক্তিগুলি। ফলে শুক্রবার শহরটিতে প্রবেশের চেষ্টা করে মার্কিন প্রশিক্ষিত সোমালি স্পেশাল ফোর্স ও পশ্চিমাদের একটি যৌথ সামরিক দল।

কিন্তু সেনারা এলাকাটির কাছে আসতেই ঘটে বিপত্তি। কেননা আশ-শাবাব যোদ্ধারা রাস্তার দুই ধারে বসিয়ে রেখেছিল শক্তিশালী মাইন বিস্ফোরক। যা একের পর এক আঘাত হানতে থেকে শত্রুদের সামরিক কাফেলাটিতে। সেই সাথে আশ-শাবাব যোদ্ধারা চতুর্দিক থেকে দখলদার ও গাদ্দার বাহিনীকে ঘিরে ভারী অস্ত্র শস্ত্র দ্বারা তীব্র হামলা চালাতে শুরু করেন।

প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, এতে মার্কিন প্রশিক্ষিত স্পেশাল ফোর্সের ৮ সৈন্য নিহত এবং আরও ৭ সৈন্য আহত হয়েছে। বাকিরা নিজেদের জীবন বাঁচাতে পালিয়ে গেছে। তবে এই অভিযানে কোন মার্কিন সেনা নিহত বা আহত হয়েছে কিনা, তা এখনো জানা যায় নি। কেননা দখলদার মার্কিন সেনারা তাদের প্রশিক্ষিত সৈন্যদেরকে যুদ্ধের ময়দান ছেড়ে দিয়ে পিছন থেকে নিজেরাই সবার আগে পলায়ন করেছে। অথচ এই কাপুরুষ সেনারাই কিনা আশ-শাবাবের বীর মুজাহিদদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গাদ্দার সোমালি সেনাদের দিকনির্দেশনা ও শক্তিবৃদ্ধি করতে গেছে!

আশ-শাবাব সংশ্লিষ্ট সংবাদ সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, হারাকাতুশ শাবাবের বীর মুজাহিদরা পশ্চিমাদের মিত্র বাহিনী ও মার্কিন বাহিনীর একটি আক্রমণ প্রতিহত করেছেন। সেই সাথে মুজাহিদগণ পশ্চিমা হানাদারদের কিসমায়োতে ​​ফিরে যেতে বাধ্য করেছেন।

উল্লেখ্য যে, সোমালিয়ায় প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিনের হাতে কঠিন মার খাওয়ার পর ২০২১ সালে দেশটি ছেড়ে যায় মার্কিন বাহিনী। কিন্তু তারা অতীত ভুলে গিয়ে চলতি বছরের মে মাসে পূণরায় সোমালিয়ায় সেনা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। আর এই সিদ্ধান্তের পর গত শুক্রবার প্রথমবার আশ-শাবাবের উপর হামলা চালানোর চেষ্টা করে দখলদার মার্কিন বাহিনী, তবে একা নয় বরং নিজেদের গোলামদের সাথে নিয়ে যৌথভাবে।

কিন্তু তারপরেও তাদের এই যৌথ অভিযান ফলাফলের মুখ তো দেখেইনি, উল্টো বরং কফিন ভর্তি সেনাদের লাশ আর আশ-শাবাবের মার খেয়ে পূণরায় যুদ্ধের ময়দান থেকে পলায়নের পথই ভীরু মার্কিন সেনারা দেখেছে।

আশা করা যায়, খুব শীগ্রই শুধু যুদ্ধের ময়দান ছেড়েই নয়, বরং এই দখলদার পশ্চিমারা আবারো লেজ গুটিয়ে সোমালিয়া ও গোটা পূর্ব আফ্রিকার ভূমি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হবে। বিইযনিল্লাহ।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধকাশ্মীর জিহাদের কিংবদন্তি নেতা: শহীদ কমাণ্ডার ইলিয়াস কাশ্মীরি (রহ.) (দ্বিতীয় পর্ব)
পরবর্তী নিবন্ধকাশ্মীর জিহাদের কিংবদন্তি নেতা: শহীদ কমাণ্ডার ইলিয়াস কাশ্মীরি (রহ.) (শেষ পর্ব)