বড় ধরণের সামরিক বিজয় আশ-শাবাবের: হতাহত শতাধিক শত্রুসেনা

ত্বহা আলী আদনান

3
1106

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় পশ্চিমা সমর্থিত গাদ্দার সরকারি বাহিনীর উপর একাধিক সফল হামলা চালিয়েছেন ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধারা। এতে কয়েক ডজন সোমালি গাদ্দার সৈন্য হতাহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় রিপোর্ট অনুযায়ী, আজ ২৯শে সেপ্টেম্বর সকাল বেলায় সোমালিয়ার হিরান রাজ্যে একটি সুইপিং আক্রমণ শুরু করেছেন হারাকাতুশ শাবাব মুজাহিদিন। যা বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত চলতে থাকে। এতে গাদ্দার সোমালি সামরিক বাহিনীর উচ্চপদস্থ ৮ কর্মকর্তাসহ ৩০ এরও বেশি সদস্য নিহত হয়েছে। নিহত কর্মকর্তাদের মধ্যে “আলামী হাজার গৌরী” নামে বিশিষ্ট এক কর্মকর্তাও রয়েছে।

সূত্রটি আরও যোগ করেছে যে, আশ-শাবাব যোদ্ধাদের তীব্র এই লড়াইয়ে ৩ ডজনেরও বেশি সৈন্য নিহত হওয়া ছাড়াও, উচ্চপর্যায়ের অফিসার সহ আরও ২৫ এর বেশি সৈন্য আহত হয়েছে। যাদের অধিকাংশের অবস্থাই গুরুতর।

সূত্র মতে, বরকতময় এই হামলাটি হিরান রাজ্যের “কুয়েহলি” অঞ্চলে অবস্থিত সরকারি মিলিশিয়াদের একটি সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে চালানো হয়েছে। যেখানে অর্ধশতাধিক মুজাহিদ ভারী অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে শত্রু শিবিরে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন। কয়েক ঘন্টার তীব্র লড়াই শেষে মুজাহিদগণ উক্ত সামরিক ঘাঁটি ও কুয়েহলি শহরের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেন।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর বিনা যুদ্ধে রাজ্যটির কৌশলগত গুরত্বপূর্ণ একটি শহরেরও নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন মুজাহিদগণ। আশ-শাবাব সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গতকাল মুজাহিদগণ হিরান রাজ্যের “বুকো” শিহরের দিকে ভারী অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে অগ্রসর হন। গাদ্দার সোমালি সরকারী মিলিশিয়ারা তখন মুজাহিদদের এই আগমনের সংবাদ পেয়েই ভয়ে আগেভাগে শহরটি ছেড়ে পালিয়ে যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র আরও নিশ্চিত করেছে যে, এই ২ দিনে হারাকাতুশ শাবাব মুজাহিদিন ২টি গুরুত্বপূর্ণ শহর বিজয় করা ছাড়াও, হিরান রাজ্যেও আরও ৭টি এলাকা পুনরুদ্ধার করেছেন। যেগুলো গত কয়েক সপ্তাহের লড়াইয়ে দখল করেছিল পশ্চিমা সমর্থিত বাহিনী।

স্থানীয় সূত্রমতে, এই এলাকাগুলি শত্রুবাহিনী থেকে পুনরুদ্ধার করতে বড় ধরনের সামরিক অপারেশন পরিচালনা করছেন মুজাহিদগণ। তাঁরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলা ও তুরষ্কের ড্রোন হামলা সত্বেও এলাকাগুলি পুনরুদ্ধার করতে ভারী অভিযান পরিচালনা করেন। এতে গাদ্দার সোমালি সামরিক বাহিনীর অসংখ্য সৈন্য নিহত এবং আহত হয়েছে। যারা বেঁচে গেছে, তারা এলাকাগুলি ছেড়ে পালিয়েছে। যার ধারা এখনো চলমান আছে…

3 মন্তব্যসমূহ

  1. শায়েখ, বাংলাদেশ এর ব্যাপারে আমাদের কি করনীয়? আপনারা অনেক দূর অঞ্চল এ জিহাদ পরিচালনা করেন।কিন্তু আমার সামনে অন্যায় হচ্ছে।আমি কিছু করতে পারছি না।কিছু মুসলিম নামধারী লোকজন তাগুত এর পক্ষে কাজ করছে।সঠিক ইলম না থাকার দরুন কিছুই বুঝতে পারছি না।আমকে কিছু দিক নিরদেশনা দিন।

    • প্রিয় ভাই, এখন শারিরিক ও মানশিক প্রস্তুতি গ্রহন করতে পারেন ইনশাআল্লাহ। অফলাইনে তানযিমের সাথে যুক্ত হওয়ার অপেক্ষা করুন ও দোআ করতে থাকুন ইনশাআল্লাহ। পাশাপাশি দাওয়াতি কাজও চালিয়ে যেতে পারেন ইনশাআল্লাহ। অনলাইনে জিহাদি কাজে শরিক থাকতে নিচের লিংক দেখতে পারেন ইনশাআল্লাহ।
      কীভাবে অনলাইনে জিহাদি সংগঠনে যুক্ত হবেন?
      https://dawahilallah.com/showthread.php?13785
      https://justpaste.it/3ul45

      বিঃদ্রঃ অনলাইনে আল কায়দা উপমহাদেশ শাখা সাথি রিক্রট করে না । অফলাইনের দাওয়াত পাওয়ার অপেক্ষা থাকুন ও সেই পর্যন্ত দোআ করতে থাকুন ইনশাআল্লাহ।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন