রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নৃশংস গণহত্যা : লাশের স্তুপ গড়লো সন্ত্রাসী মিয়ানমার

মাহমুদ উল্লাহ্‌

1
839
গণহত্যার শিকার রোহিঙ্গা মুসলিমদের লাশের স্তুপ

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নৃশংস গণহত্যার ঘটনা ঘটেছে। ১৩ জন রোহিঙ্গা যুবককে গণহত্যা করে লাশ রাস্তায় স্তুপ আকারে ফেলে রাখে বর্বর মিয়ানমার জান্তা বাহিনী।

গত ৪ ডিসেম্বর মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন শহরের পার্শবর্তী একটি এলাকায় স্তুপ আকারে লাশগুলো পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। স্থানীয়দের বরাতে মিয়ানমার গণমাধ্যম খিটখিট মিডিয়া জানায়, লাশগুলোর শরীরে কোন গুলির চিহ্ন নেই। তবে শরীরে আঘাত ও পিঠে পোড়া ক্ষত এবং সামরিক বুট দ্বারা আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ফলে ধারনা করা হচ্ছে এসব মুসলিমদের নির্মমভাব পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

মিয়ানমার গণমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, গত ৩ ডিসেম্বর গণহত্যার শিকার হওয়া ঐ ১৩ রোহিঙ্গা যুবকে গ্রেফতার করেছিল মিয়ানমার সামরিক জান্তা। আর এর পরের দিনই তাদের লাশ মেলে রাস্তায়।

মুসলিম বিশ্বের নিরবতায় বর্বর বৌদ্ধরা রোহিঙ্গা মুসলিমদের সাথে পশুর মতো আচরণ করছে। মুসলিম নারীদের পাশবিক নির্যাতন ও পুরুষদের হত্যা করছে। সেনাদের নির্যাতনে লাখ লাখ রোহিঙ্গা নিজেদের বাড়িঘর ছেড়ে উদ্বাস্তু হয়েছে। তাদের এখন বিভিন্ন দেশের শরনার্থী ক্যাম্পে অমানবিকভাবে জীবন-যাপন করছে।

অন্যদিকে এখনো প্রতিদিনই নিরাপদ জীবনের জন্য আরাকান ছেড়ে পালাচ্ছে রোহিঙ্গা মুসলিমরা। আর পালনোর সময় মিয়ানমার বাহিনীর গ্রেফতারের শিকার হচ্ছেন রোহিঙ্গারা। গত ৫ ডিসেম্বর এমনি ৭৮ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করেছে মিয়ানমার জান্তা। চলতি বছর এ পর্যন্ত ১৬০০ রোহিঙ্গা মুসলিমকে গ্রেফতার করেছে সন্ত্রাসী মিয়ানমার। এসব গ্রেফতারকৃতদের নুন্যতম ২ থেকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে থাকে সামরিক জান্তা সরকার।

রোহিঙ্গাদের ওপর এমন বর্বরোচিত গণহত্যা এটিই প্রথম নয়, ২০১৭ সালে গণহত্যা চালানোর পর থেকে এখন পর্যন্ত জাতিসংঘ রোহিঙ্গা মুসলিদের জন্য কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এছাড়াও কথিত আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালত (আইসিসি) এখনো ‘রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার কোন অপরাধ করেছে কিনা’- তা তদন্ত করছে বলে এক রিপোর্টে জানিয়েছে সংস্থাটি। জানা যায়, নিপিড়নের শিকার রোহিঙ্গাদের সঙ্গে অনলাইনে আলোচনার মাধ্যমে সাধারণ তথ্য সংগ্রহ করার পাশাপাশি প্রমাণাদি সংগ্রহের কাজও নাকি চালিয়ে যাচ্ছে আইসিসি।

এভাবেই বার বার রোহিঙ্গা মুসলিমদের সাথে তামাশা করে যাচ্ছে দালাল জাতিসংঘ ও কথিত মানবাধিকার সংস্থাগুলো। আর এক শেণির মুসলিমও জাতিসংঘ ও পশ্চিমাদের কাছেই রোহিঙ্গাদের সমস্যার সমাধান খুঁজে ফিরছে, যা কোন দিনও সম্ভব নয়। তাই বহুদিন ধরেই নিপিড়িত উম্মাহকে উদ্বারে নববী সুন্নাহ অনুসারে সার্বিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে আসছেন হকপন্থী আলেম-উলামাগণ।



তথ্যসূত্র :
———
1. BREAKING: 13 Rohingya dead bodies found
https://tinyurl.com/5xwazffh
2. 78 Rohingya Arrested
https://tinyurl.com/bdvkckep
3. মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্ত চলছে: আইসিসি
https://tinyurl.com/4jwes2vm

 

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন