ফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ১২ মে, ২০২৪

0
85

জাতিসংঘের মতে, অন্তত ৩ লাখ ফিলিস্তিনি রাফা শহর ত্যাগ করেছেন। ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী রাফায় স্থল আগ্রাসন বিস্তার করার পর ফিলিস্তিনিরা সেখান থেকে অন্য জায়গায় যেতে থাকেন।

উত্তর গাজায় আবারও সৈন্য পাঠিয়েছে জায়োনিস্ট ইসরায়েল।

জায়োনিস্ট ইসরায়েলি বাহিনী এখন জাবালিয়া শরণার্থী শিবির এলাকায় অ্যাম্বুলেন্সকে টার্গেট করে হামলা করছে।

গাজা শহরের শুজাইয়া পাড়ায় জায়োনিস্ট বাহিনী একটি বাড়িতে বোমা হামলা করে ১ ফিলিস্তিনি নারীকে হত্যা করেছে। এ হামলায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১০ জন ফিলিস্তিনি।

পশ্চিম তীরে আগ্রাসন চালিয়ে বহু সংখ্যক ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করেছে জায়োনিস্ট বাহিনী।

মধ্য গাজায় মেডিকেল ক্লিনিকে হামলা চালিয়ে একজনকে হত্যা করেছে জায়োনিস্ট ইসরায়েল।

গাজায় দখলদার ইসরায়েলের হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন অন্তত ৩৫,০৩৪ জন ফিলিস্তিনি।

উত্তর গাজার জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরের পূর্বে তাকাদ্দুমে দখলদার বাহিনীর সাথে তীব্র যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ।

জায়তুন পাড়ার দক্ষিণে স্ট্রিট ৮ -এ জায়োনিস্ট বাহিনীর অবস্থানে মর্টারশেল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড। স্ট্রিট ১০ এ আল-কুদুস ব্রিগেডের সাথে যৌথভাবে ভারী মর্টারশেল নিক্ষেপ করেছেন জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর।

উত্তর গাজার জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরের পূর্বে একটি জায়োনিস্ট মারকাভা ট্যাংকের উপর ড্রোন দিয়ে বর্মবিধ্বংসী গোলা নিক্ষেপ করতে সক্ষম হয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ।

জাবালিয়া ক্যাম্পের পূর্বে আরেকটি জায়োনিস্ট মারকাভা ট্যাংকে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালান আল-কাসসাম ব্রিগেড। এতে ট্যাংকে আগুন ধরে যায় এবং ভেতরে থাকা জায়োনিস্ট সৈন্যরা হতাহত হয়েছে।

জাবালিয়া ক্যাম্পের পূর্বে জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর মর্টারশেল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরের পূর্বে রিয়াদ আল-সালেহীন মসজিদের পেছনে জায়োনিস্ট বাহিনীর দুটি ট্যাংকে দুটি ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম মুজাহিদিন।

জাবালিয়ায় আল-মাবুহ এলাকায় অনুপ্রবেশকারী জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর মর্টারশেল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ।

আল-মাবুহ এলাকার কাছে একটি জায়োনিস্ট ট্যাংকে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড। এতে ট্যাংকে আগুন ধরে যায়।

দখলীকৃত আসকালানে জায়োনিস্ট দখলদারদের উপর জাবালিয়া এলাকা থেকে মিসাইল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

জাবালিয়ার পূর্বে অনুপ্রবেশকারী একটি জায়োনিস্ট মারকাভা ট্যাংকে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ।

জাবালির পূর্বে একদল স্পেশাল জায়োনিস্ট সৈন্যের উপর বিস্ফোরক ডিভাইস বিস্ফোরিত করেছেন আল-কাসসাম মুজাহিদিন। এরপর তারা আরেকটি জায়োনিস্ট সৈন্যবহনকারী গাড়িতে তানডুম গোলা দিয়ে হামলা চালিয়েছেন। এতে অন্তত এক জায়োনিস্ট সৈন্য নিহত এবং আরেক সৈন্য আহত হয়েছে।

দখলীকৃত সেদরতে জায়োনিস্ট অবস্থানে দুই ধাপে মিসাইল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

জাবালিয়ার পূর্বে আরেকটি মারকাভা ট্যাংকে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড ।

জাবালিয়া শহরের পূর্বে মায়াজা হলের কাছে একটি মারকাভা ৪ ট্যাংকে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

জাবালিয়া ক্যাম্পের পূর্বে আল-মাবুহ এলাকার কাছে একটি জটিল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ। এসময় প্রথমে জায়োনিস্ট বাহিনীর একটি মারকাভা ট্যাংকে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালানো হয়। এতে উপস্থিত জায়োনিস্ট সৈন্যরা পালিয়ে নিকটস্থ একটি ভবনে যায়। সেখানে আগে থেকেই ববি-ট্র্যাপের ব্যবস্থা করে রেখেছিলেন মুজাহিদগণ। জায়োনিস্ট সৈন্যরা সেখানে যাওয়ার পর ববি-ট্র্যাপ বিস্ফোরণ ঘটে। এতে এক জায়োনিস্ট সৈন্য নিহত বা আহত হয়েছে।

জাবালিয়া ক্যাম্পের পূর্বে মাজায়া হলের কাছে একটি বাড়িতে অবস্থান নিয়েছিল জায়োনিস্ট বাহিনী। তাদের উপর দুটি টিবিজি গোলা দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ। এতে জায়োনিস্ট সৈন্যরা নিহত বা আহত হয়েছে।

• আল-মাবুহ এলাকার ভেতরে জায়োনিস্ট বাহিনীর অবস্থানে মর্টারশেল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

• রাফায় অনুপ্রবেশকারী আগ্রাসী জায়োনিস্ট সৈন্যদের উপর দুই ধাপে মর্টারশেল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

• রাফার পূর্বে জায়োনিস্ট বাহিনীর অবস্থানে ভারী মর্টারশেল হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধএক সপ্তাহে পূর্ব আফ্রিকায় আশ-শাবাবের ১৮ অভিযান
পরবর্তী নিবন্ধউত্তর ও মধ্য গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় ১৯ ফিলিস্তিনি নিহত