ফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ১৫ মে, ২০২৪

0
83

দক্ষিণ গাজার রাফায় জায়োনিস্ট ইসরায়েলি হামলায় কল্পনাতীত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়ে আন্তর্জাতিক উদ্ধার কমিটি। সেখানে খাদ্য, পানি এবং পর্যাপ্ত স্যানিটেশনের অভাব রয়েছে।

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন অন্তত ৩৫,২৩৩ জন ফিলিস্তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফুর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিলিস্তিনের পক্ষে বিক্ষোভের সময় শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করেছে পুলিশ।

পশ্চিম তীরের তুলকারেমে হামলা চালিয়ে ৩ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে জায়োনিস্ট সেনারা।

এই বছরের জানুয়ারি থেকে গাজায় ত্রাণ কার্যক্রমে ৮০টি হামলা চালিয়েছে জায়োনিস্ট ইসরায়েল।

গাজা শহরের সাবরা পাড়ায় জাতিসংঘের ফিলিস্তিনি শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার পরিচালিত একটি ক্লিনিকে হামলা চালিয়েছে জায়োনিস্ট ইসরায়েল। এতে শিশুসহ অন্তত ১০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

জায়োনিস্ট বাহিনীর স্থল আগ্রাসনের কারণে ৬ই মে থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৬ লাখ মানুষ রাফা ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

পশ্চিম তীরের রামাল্লার কাছে একটি ট্রাকে হামলা চালিয়ে ট্রাক ড্রাইভারকে মারধর করেছে জায়োনিস্ট দখলদাররা। ঐ ট্রাকটি গাজায় মানবিক সহায়তা নিয়ে যাচ্ছিল বলে মনে করা হচ্ছে।

১৫ই মে জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর আল-কাসসাম ব্রিগেডের হামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ নিচে দেওয়া হলো-

উত্তর গাজার জাবালিয়া ক্যাম্পে তারনিস জংশনে একটি ডি৯ বুলডোজারে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড ।

সেদেরতে জায়োনিস্ট দখলদারদের উপর রাজুম মিসাইল দিয়ে হামলা চালিয়েছেন।

উত্তর গাজার জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরের পূর্বে একদল দখলদার সৈন্যদের উপর ড্রোনের সাহায্যে একটি অ্যান্টি পার্সনেল মিসাইল ফেলতে সক্ষম হয়েছেন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরের ব্লক-৪ এলাকায় একটি কমপ্লেক্স হামলা চালিয়েছেন আল-কাসসাম মুজাহিদিন। এসময় প্রথমে তারা ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে একটি ডি৯ জায়োনিস্ট বুলডোজারে হামলা চালান। এরপর দুটি অ্যান্টি পার্সনেল গোলা দিয়ে একটি বাড়িতে অবস্থান নেওয়া জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর হামলা চালান। পরে তাদের সাথে গোলাগুলিতে লিপ্ত হন মুজাহিদগণ। কিছু সময়ের মধ্যেই সেখানে শত্রুদের সাহায্যে আরেকদল জায়োনিস্ট বাহিনী আসে। তাদের একটি মারকাভা ট্যাংকে শাওয়াজ ডিভাইস বিস্ফোরিত করেন মুজাহিদগণ। এরপর জায়োনিস্ট সৈন্যদের উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে ঐ জায়গায় জায়োনিস্ট বিমান বাহিনী বর্বরোচিত বোমা হামলা চালায়। আমাদের মুজাহিদগণ নিশ্চিত করেছেন, অন্তত ১২ জায়োনিস্ট সৈন্য এই হামলায় নিহত হয়েছে।

রাফার পূর্বে আল-তাবায়েন মসজিদের কাছে এক জায়োনিস্ট সেনাকে স্নাইপিং করেছেন আল-কাসসাম মুজাহিদিন।

উত্তর গাজার জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরের পূর্বে একটি বাড়িতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালায় জায়োনিস্ট স্পেশাল বাহিনী। তাদের উপর শাওয়াজ ডিভাইস বিস্ফোরিত করেছেন আল-কাসসাম মুজাহিদিন। এরপর মুজাহিদগণ জায়োনিস্ট সেনাদেরকে শেষ করে দেন।

জাবালিয়ার পূর্বে আল-তাকাদদুমমে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে একটি জায়োনিস্ট মারকাভা ৪ ট্যাংকে হামলা চালিয়েছেন।

জাবালিয়ার আল-তাকাদদুমে একদল স্পেশাল জায়োনিস্ট বাহিনীকে টার্গেট করে অ্যান্টি পার্সনেল টিবিজি মিসাইল হামলা চালাতে সক্ষম হয়েছেন।

জাবালিয়ার পূর্বে শত্রু বাহিনীর গোলন্দাজের অবস্থানে মর্টারশেল নিক্ষেপ করেছেন।

রাফার পূর্বে ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে একটি জায়োনিস্ট ডি৯ বুলডোজারে হামলা করেছেন।

দক্ষিণ লেবানন থেকে আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ দখলীকৃত উত্তর ফিলিস্তিনের পশ্চিম গেলিলীতে লিমান সামরিক ঘাঁটিতে মিসাইল হামলা চালিয়েছেন।

জাবালিয়ার পূর্বে ইয়াসিন ১০৫ মিসাইল দিয়ে একটি জায়োনিস্ট মারকাভা-৪ ট্যাংকে হামলা করেছেন।

রাফার পূর্বে আল-আরাদাত এলাকায় ইয়াসিন ১০৫ দিয়ে একটি মারকাভা ট্যাংকে হামলা করেছেন।

আমিতাই অবস্থানে জায়োনিস্ট বাহিনীর উপর রাজুম মিসাইল দিয়ে হামলা করেছেন ।

গাজা শহরের জায়তুন পাড়ার দক্ষিণে একদল পদাতিক জায়োনিস্ট সৈন্যের উপর অ্যান্টি পার্সনেল মিসাইল দিয়ে হামলা করেছেন আল-কাসসাম মুজাহিদিন। এতে শত্রুসৈন্যরা হতাহত হয়েছে বলে যুদ্ধক্ষেত্র থেকে ফিরে জানান মুজাহিদগণ।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধযুদ্ধের ৭ মাস পর উত্তর গাজায় জায়োনিস্ট বাহিনীতে বড় বিপর্যয়
পরবর্তী নিবন্ধফিলিস্তিনিদের ত্রাণের ট্রাক লুট করছে ইসরায়েলিরা