পাকিস্তানে নিরপরাধ মহিলাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় জনগণের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি

0
214
পাকিস্তানে নিরপরাধ মহিলাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় জনগণের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি

গত সপ্তাহে পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে ক্ষমতাসীন দলের সাথে জড়িত মুরতাদ সদস্যদের হাতে এক নিরপরাধ মহিলাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় বেলুচ জনগণের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। বেলুচিস্তান ন্যাশনাল পার্টির (বিএনপি) সভাপতি ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আক্তার মেনগাল পাকিস্তানের বিচার বিভাগকে আক্রমণ করে বলেছেন যে তারা প্রদেশ সরকারকে বেলুচিস্তানের অপরাধের জন্য জবাবদিহি করার দায়িত্ব ত্যাগ করেছে।

আক্তার গত মঙ্গলবার বেলুচিস্তানের তুরবত নগরীর ডান্নোক সন্নিকটে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যাওয়া মালিকানাজ এবং তার চার বছরের বাচ্চা মেয়ে ব্রামেশকে উল্লেখ করেছিলেন।

পুরো অপারেশনটি বেলুচিস্তানের ক্ষমতাসীন দল বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টির (বিএপি) একটি ডেথ স্কোয়াডের সদস্যদের দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল বলে অভিযোগ করা হয়েছে।
রবিবার আখতার মেনগাল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ট্যাগ করে টুইট করে বলেছিলেন: “বেলুচিস্তানে নির্দোষ শিশু, তরুণ শিক্ষার্থী, প্রবীণ এবং মহিলাদের হত্যা করা কোনও অপরাধ নয়। ব্রামেশ এবং তার মায়ের জন্য কি কখনও ন্যায়বিচার পাওয়া যাবে? বা বেলুচ জনগণের জন্য ন্যায় বিচার সাবস্ত হবে?
এই ঘটনা বিদেশেও মানবাধিকারকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।
জিবি অঞ্চলে অধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে সচেতন করার জন্য ২০১০ সালে গঠিত গিলগিত-বালতিস্তান ন্যাশনাল কংগ্রেসের ওয়াশিংটনের ডিসি-ভিত্তিক পরিচালক সেজে হাসানান সেরিং টুইট করেছেন, “আমার হৃদয় ৪ বছরের ব্রামশের দিকে যায় তাঁর মাকে সামরিক সমর্থিত সন্ত্রাসীরা গুলি করে হত্যা করেছিল । একটি গুলি তাঁর কাঁধেও লেগেছিলো।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন