খোরাসান | তালেবানের বীরত্বপূর্ণ হামলা, ১১৫ কাবুল সৈন্য নিহত ও আহত

1
593
খোরাসান | তালেবানের বীরত্বপূর্ণ হামলা, ১১৫ কাবুল সৈন্য নিহত ও আহত

ইমারতে ইসলামিয়া আফগানিস্তানের জানবায তালেবান মুজাহিদিন মুরতাদ কাবুল বাহিনীর বিরুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ ১০টি সফল অভিযান পরিচালনা করেছেন, এতে কমপক্ষে ১১৫ কাবুল সৈন্য নিহত ও আহত হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, গত ৯ ও ১০ নভেম্বর রাতে আফগানিস্তানের কুন্দুজ প্রদেশের ইমাম সাহেব ও আলিয়াবাদ জেলায় মুরতাদ কাবুল বাহিনীর বিরুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ সফল অভিযান পরিচালনা করেছেন ইমারতে ইসলামিয়ার জানবায তালেবান মুজাহিদিন।

এতে মুরতাদ কাবুল বাহিনীর ১টি ট্যাঙ্ক ও ২টি ফাঁড়ি সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে গেছে। মুজাহিদদের হাতে নিহত হয়েছে কাবুল বাহিনীর ২১ সৈন্য, আহত হয়েছে আরো ১৪ এরও অধিক। এই অভিযান থেকে মুজাহিদগণ ১টি ক্লাশিনকোভ ও ১৪টি তোপ-কামান সহ অনেক যুদ্ধাস্ত্র ও গুলাবারুদ গনিমত লাভ করেছেন।

প্রদেশটির আলিয়াবাদ জেলায় মুরতাদ বাহিনীর বিরুদ্ধে অন্য একটি সফল অভিযানও পরিচালনা করেছিলেন মুজাহিদগণ। এতে ৪ সৈন্য নিহত এবং আরো ৪ সৈন্য আহত হয়েছে।

একই রাত ১১ টায় কুনার প্রদেশের চাপি-দারি জেলায় অবস্থিত মুরতাদ কাবুল বাহিনীর ঘাঁটিতে সফলভাবে লেজার আক্রমণ শুরু করেন তালেবান মুজাহিদগণ, যা টানা দুই ঘন্টা যাবৎ চলেছিল। এতে কমান্ডার শের আফজাল সহ ১১ সৈন্য নিহত এবং ২ এরও অধিক মুরতাদ সৈন্য আহত হয়েছিল।

একইদিন সকাল দশটায় কাবুলের পুতুল প্রশাসনের ভাড়াটে সেনা ও পুলিশের অপারেশন ফোর্স তালেবান নিয়ন্ত্রিত হেলমান্দ প্রদেশের গার্শক জেলার ২টি এলাকায় অভিযান পরিচালনার জন্য পৌঁছেছিল। মুরতাদ সৈন্যরা এলাকা দুটিতে আসা মাত্রই মুজাহিদগণ তীব্র হামলা চালাতে শুরু করেন। যার ফলে মুরতাদ বাহিনীর ৩টি সামরিকযান ধ্বংস, ৯ সৈন্য নিহত এবং ৮ এরও অধিক সৈন্য আহত হয়েছে। বাকি সৈন্যরা নিজেদের জীবন বাঁচাতে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে। তবে এসময় কাবুল বাহিনীর হামলায় একজন মুজাহিদ আহত এবং আরো একজন মুজাহিদ শাহাদাত বরণ করেন। তাকাব্বালাল্লাহু তা’আলা।

ঐদিন হেলমান্দ প্রদেশের রাজধানী লস্করগাহে জেলাতেও তালেবান নিয়ন্ত্রিত এলাকায় ক্রুসেডার মার্কিন বিমান বাহিনীর সহায়তায় হামলা চালানোর চেষ্টা করেছিল কাবুল বাহিনী। কিন্তু মুজাহিদদের তীব্র প্রতিরোধ যুদ্ধের কাছে পরাজিত হয় কাবুল বাহিনী। মুজাহিদদের হামলার তীব্রতা একটাই প্রকট ছিল যে, মুরতাদ বাহিনী সামনে অগ্রসর হওয়া তো দূরের কথা বরং নিজেদেরই নিয়ন্ত্রিত ২ কিলোমিটার এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে। এসময় মুজাহিদদের হামলায় নিহত হয়েছে কাবুল বাহিনীর ১৩ সৈন্য। বিপরীতে কাবুল বাহিনীর হামলায় আহত হয়েছেন ২ জন মুজাহিদ।

এদিকে উরুজগান প্রদেশের দেরাদুন জেলা ও তিরিনকোটে কাবুল বাহিনীর বিরুদ্ধে ২টি সফল অভিযান পরিচালনা করেছেন মুজাহিদগণ। এরমধ্যে তিরিনকোটে মুজাহিদদের পরিচালিত হামলায় ৫ সৈন্য নিহত হয়েছে। আর দেরাদুন জেলায় মুজাহিদদের প্রতিরোধ যুদ্ধে নিহত হয়েছে কাবুল বাহিনীর ৮ মুরতাদ সৈন্য। এই অভিযানের সময় কাবুল বাহিনীর হামলায় শাহাদাত বরণ করেছেন ৩ জন মুজাহিদ এবং আহত হয়েছেন আরো ২ জন মুজাহিদ। তাকাব্বালাহুমুল্লাহু তা’আলা।

অপরদিকে সার্পাল, ফরাহ ও জাবুল প্রদেশেও ৩টি পৃথক অভিযান পরিচালনা করেছেন তালেবান মুজাহিদগণ। যার ফলে কাবুল বাহিনীর ১২ সৈন্য নিহত এবং ৮ সৈন্য আহত হয়েছে।

IMG-20201109-213604

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন