সিরিয়া | নিরপরাধ মানুষ হত্যাকারী আসাদ সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মৃত্যু

2
568
সিরিয়া | নিরপরাধ মানুষ হত্যাকারী আসাদ সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মৃত্যু

নিরপরাধ হাজারো মুসলিমকে হত্যার রেকর্ড তৈরির পর, অবশেষ মারা গেলো আসাদ সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘ওয়ালিদ আল-মুয়াল্লিম’।

গত ১৫-১৬ নভেম্বর মধ্যরাতে, কুখ্যাত আসাদ সরকারের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ৭৯ বছর বয়সী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ আল-মুয়াল্লিমের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। আসাদের তাবেদার বার্তা সংস্থা “সানা” পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু উল্লেখ না করে তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে।

সিরিয়ার বিপ্লব শুরুর দিকেই এই কুখ্যাত অপরাধী ‘মায়াল্লিম” আবির্ভূত হয়েছিলো, তখন থেকেই সে মুরতাদ আসাদ গ্যাংদের বহিরাগত ফ্রন্ট লাইনে কাজ করতে শুরু করে। বিশেষ করে মুসলিম বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে নানারকম অপপ্রচার ও বিশ্বের সামনে তাদেরকে সন্ত্রাসী হিসাবে উপস্থাপন করতে থাকে। এত কিছুর পরেও যখন দেখলো বিদ্রোহীদের বিজয় যাত্রা থামানো যাচ্ছে না, তখনই সে ইরান ও রাশিয়ান দখলদার মিলিশিয়াদের সিরিয়ায় ডেকে আনে। এরপর এসকল মুরতাদ ও কুফ্ফার জোট বাহিনীগুলোর অপরাধের তালিকা ঢাকতে এবং বেসামরিক মুসলিমদের উপর তাদের হামলাকে ন্যায়সঙ্গত আখ্যা দিতে থাকে।

সর্বশেষ মুসলিম বিদ্রোহীদের ধোঁকা দিতে এবং তাদের মধ্যকার ঐক্য নষ্ট করতে আস্তানা চুক্তির মত যেসব চুক্তিগুলো তুরষ্কের সাথে মিলে করা হয়েছিলো, এসবের পিছনের তার ভুমিকা ছিল অনেক। বলতে গেলে এতে সে পরিপূর্ণভাবেই সফল হয়েছে। কেননা এসব চুক্তির মাধ্যমে বিদ্রোহীদেরকে গ্লোবাল চিন্তা-চেতনা, জিহাদের লক্ষ্য-উদ্দ্যেশ্য এবং তাদের দৃঢ়তাকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছিলো। বিপরীত তাদের মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া হলো জাতিয়তাবাদের বিষাক্ত বীজ, তাদেরকে মুখাপেক্ষী করে দেওয়া হল সেকুলার নেতা ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের।

২০০৬ সালে মুরতাদ ওয়ালিদ আল-মুয়াল্লিম পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ গ্রহণ করে এবং বেশিরভাগ পশ্চিমা সরকারের সাথে নতুন করে সম্পর্ক তৈরিতে অবদান রাখে।

IMG-20201116-210925-718

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন