টিকা দেয়ার পরও ইসরাইলে বাড়ছে করোনা

1
536
টিকা দেয়ার পরও ইসরাইলে বাড়ছে করোনা

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ত্রিশ লাখের বেশি নাগরিককে ভাইরাস প্রতিরোধী টিকা দিয়েছে ইসরাইল। কিন্তু বিপুল টিকা সরবরাহের পরেও দেশটিতে বেড়ে চলছে ভাইরাস আক্রমণ।

জেরুসালেমের কালালিত হেলথকেয়ারের করোনাভাইরাস প্রতিকার ও টিকা সরবরাহ বিষয়ক প্রধান ইয়ান মিসকিন সোমবার বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সিকে এক সাক্ষাতকারে এই কথা জানান।

মিসকিন বলেন, ইসরাইলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিস্থিতি এখনো জটিল।

তিনি বলেন, ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের রূপান্তরিত ধরন হয়তো ইসরাইলে করোনা সংক্রমণের বেড়ে যাওয়ার পেছনে মূল কারণ হতে পারে।

মিসকিন বলেন, ‘ডিসেম্বরের শেষে যখন টিকা সরবরাহ শুরু হয়, তখনকার ভাইরাস সংক্রমণের ৩০ থেকে ৪০ ভাগ নতুন ধরনের ভাইরাস। বর্তমানে, ভাইরাস আক্রান্তের ৮০ ভাগের বেশি ব্রিটিশ রূপান্তরিত ধরনে সংক্রমিত।’

শিশুরাও ব্রিটেনের রূপান্তরিত ধরনের ভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছে জানান মিসকিন।

ইসরাইলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, দেশটিতে ৩০ লাখের বেশি লোককে কোভিড-১৯ টিকার প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া, ১৭ লাখ ইসরাইলির দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণের কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

মিসকিন বলেন, ৬০ বছরের বেশি বয়সী প্রায় ৯০ ভাগ ইসরাইলি করোনা প্রতিরোধে টিকা নিয়েছেন।

সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয় ধাপে ৪০ থেকে ৫০ বছর বয়সী ইসরাইলিদের টিকা দেয়া হবে। তাদের টিকা দেয়া শেষ করতে আমাদের দুই থেকে তিন সপ্তাহ সময় প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘এক মাসের মধ্যেই, ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ইসরাইলের বেশিরভাগ মানুষকেই টিকা দেয়া হবে।’

করোনাভাইরাস সংক্রমণ নজরদারি করা জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্যানুসারে, বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা পর্যন্ত ইসরাইলে করোনাভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন ছয় লাখ ৬৮ হাজার আট শ’ ৭৪ জন। ভাইরাস সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে চার হাজার নয় শ’ ৪৮ জন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ইসরাইল সরকার দেশটিতে কঠোর লকডাউন দেয়। পাশাপাশি বেনগুরিয়ান বিমানবন্দর ও সীমান্তের টার্মিনাল বন্ধ করে দেয়া হয়।

ইয়ান মিসকিন বলেন, ইসরাইল আরো দীর্ঘ সময় করোনা মহামারীর ভেতর দিয়ে যাবে। নয়া দিগন্ত

১টি মন্তব্য

  1. যখন আমাদের মুসলিম ভাই বোনদের উপর জুলুম করতো ইহুদিরা তখন আমরা অসহায়ের মতো মোবাইলের স্ক্রিনে তাকিয়ে থাকতাম।

    আর বর্বর অভিশপ্ত ইহুদিরা বর্বর উল্লাস করতো কিন্তু আজ ভিন্ন এখন ইহুদিদের প্রাপ্য বুঝার সময় আর তা ইহুদিদের হবেই। ধংস হোক এই ইহুদিদের।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন