‘বাড়িতে তীর-ধনুক রাখুন’- এবার মুসলিমদের বিরুদ্ধে অস্ত্র তুলে নেওয়ার আহ্বান উগ্র হিন্দু নেতার

মাহমুদ উল্লাহ্‌

2
1980
‘বাড়িতে তীর-ধনুক রাখুন’- এবার মুসলিমদের বিরুদ্ধে অস্ত্র তুলে নেওয়ার আহ্বান উগ্র হিন্দু নেতার

ভারত জুড়ে মুসলিম নিধনের হাক-ডাক চলছে প্রকাশ্যে, চারিদিকে জ্বলছে মুসলিম বিদ্বেষের আগুন। চলছে মুসলিম গণহত্যার চূড়ান্ত প্রস্তুতি। আর সেই আগুনে নিয়মিত ঘি ঢেলে যাচ্ছে সাধু সন্ন্যাসীর নামধারী উগ্র হিন্দু সন্ত্রাসী ধর্মগুরু ও হিন্দুত্ববাদী নেতা কর্মীরা।

এবার বিজেপির হিন্দুত্ববাদী নেতা বাড়িতেই অস্ত্র মজুত রাখার আহ্ববান জানিয়েছে। উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের সাংসদ সাক্ষী মহারাজের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে ইতিমধ্যেই তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে। সে সরাসরি মুসলিমদেরকে আগ্রাসী হিসেবে তুলে ধরেছে। মুসলিম বিদ্বেষ ছড়িয়ে দিতে সে অমুসলিমদের সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়ে বলেছে, ‘পুলিশ কাউকে বাঁচাতে পারবে না। তাই নিজেদেরই দায়িত্ব নিয়ে আত্মরক্ষা করতে হবে।’

দিল্লিতে হনুমান জয়ন্তীর সময়ে মুসলিমদের উপর হামলার উত্তাপ এখনও কমেনি। এর মধ্যেই হিন্দুত্ববাদী নেতা সাক্ষী মহারাজের ঐ ফেসবুক পোস্টের ফলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হচ্ছে। কিছু ব্যক্তি হাতে লাঠি নিয়ে ছুটে আসছে- এরকম একটি ছবি পোস্ট করেেই সে এমন মুসলিম বিদ্বেষী উসকানিমূলক পোষ্ট দিয়েছে।

সুত্রে জানা গিয়েছে, ছবিটি ২০১৩ সালে বাংলাদেশের ঢাকাতে তোলা হয়েছিল। এই পোস্টের সঙ্গে সে লিখেছে, “যদি আপনার পাড়ায় এভাবে কেউ হামলা করতে আসে, তাহলে বাঁচার কিছু উপায় রয়েছে। যদি কারওর এই উপায়গুলি অজানা থাকে, অবিলম্বে তা জেনে নিন,” বলেছে সাক্ষী।

এরপরেই ঐ উগ্র হিন্দু সন্ত্রাসী লিখেছে, “পুলিশ কাউকে বাঁচাতে আসবে না। তারা লুকিয়ে পড়বে।” যদিও হিন্দুত্ববাদী পুলিশ সবসময়ই হিন্দুদের পক্ষ নিয়ে মুসলিমদের উপর হামলা করে আসছে।
“এরা যখন জেহাদ করে চলে যাবে, তখন লাঠি ঠুকতে ঠুকতে পুলিশ আসবে। কিছুদিন পরে তদন্ত কমিটি তৈরি করা হবে। সেখানে গিয়েই এই হামলার ইতি হবে।”

তাহলে কীভাবে এই পরিস্থিতি সামলানো উচিত বলে মনে করে ঐ সাক্ষী মহারাজ? সে লিখেছে, “এই অতিথিদের জন্য বাড়িতে কোল্ড ড্রিংক্সের বোতল জমিয়ে রাখুন। তীরও সংগ্রহ করে রাখুন।”
এই ধরনের মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্যের ফলে হিন্দুরা মুসলিমদের উপর হামলা করতে উৎসায়িত হবে বলেই মনে করেন বিশ্লেষকগণ।

এর আগেও বেশ কয়েকবার উস্কানিমূলক মন্তব্য করেছিল সাক্ষী মহারাজ। দিল্লির সাম্প্রদায়িক হিংসা নিয়েও মুখ খুলেছিল সে। সেগুলোতেও সে মুসলিমদের নিয়ে নানা বিদ্বেষমূলক কথা বলেছে।

আর এই বিতর্কিত সাক্ষী বিজেপি সর্বজনবিদিত নেতা। এই ব্যপারে আর কোন সন্দেহই থাকছে না যে, সবকিছু হিন্দুত্ববাদী শাসকের মদদেই হচ্ছে।

হকপন্থি আলেমগণ ও ইসলামি বিশ্লেষকরা মনে করেন, মুসলিমদের উচিৎ এখনই প্রস্তুতি গ্রহণ করা। আজ ভারতে উগ্র হিন্দুরা পূর্ণরূপে তৎপর হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশেও উগ্র হিন্দুরা তৎপরতা বাড়াচ্ছে। তাই এই মুহুর্তে সকল মুসলিমদের উচিৎ নিজেদের সারিরিক-মানসিক-আর্থিক সহ সব ধরণের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করা –  এমনটাই মত দিচ্ছেন তাঁরা।


তথ্যসূত্র:
——–
১। ‘বাড়িতে তির-ধনুক রাখুন’, এবার ঘুরিয়ে সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে অস্ত্র তুলে নেওয়ার নিদান সাক্ষী মহারাজের
https://tinyurl.com/bdezn353

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন