বুরকিনান সেনাবহরে প্রতিরোধ যোদ্ধাদের হামলা : নিহত ১০, আহত ৯

2
374

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাঁসোতে দেশটির সেনাবাহিনী ও সশস্ত্র ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধাদের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অফিসার সহ বহু সংখ্যক সেনা সদস্য নিহত  এবং আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

বুরকিনা ফাসো সেনাবাহিনী কর্তৃক প্রকাশিত এক বিবৃতিতে থেকে জানা গেছে, গত ২ জুন বৃহস্পতিবার দেশটির সৌম প্রদেশের ডিকবো অঞ্চলে গাদ্দার সামরিক বাহিনী ও ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধাদের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষটি দীর্ঘ ৪ ঘন্টা ধরে চলতে থাকে। এতে সামরিক বাহিনীর অন্তত ১০ সেনা সদস্য নিহত হয়েছে।

এই লড়াইয়ে প্রতিরোধ যোদ্ধাদের হামলায় আরও ৯ সেনা আহত হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে। একই সাথে সামরিক বাহিনী কোন প্রতিরোধ বাহিনীর নাম উল্লেখ না করে দাবি করেছে যে, তাদের ছোঁড়া গুলিতেও কয়েকজন সশস্ত্র “জিহাদী” নিহত হয়েছে।

অন্যদিকে, সূত্রটি আরও ঘোষণা করেছে যে, দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলিয় সৌরো প্রদেশের গোমবোরো অঞ্চলেও গত ১ জুন বুধবার একটি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। যেখানে দেশটির “রিকনেসান্স ইউনিট” নামক একটি সামরিক বাহিনীর সাথে তীব্র লড়াইয়ে অবতীর্ণ হন আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী ‘জেএনআইএম’। ঐ লড়াইটি প্রায় দেড় ঘন্টা ধরে স্থায়ী হয়েছিল। ফলশ্রুতিতে গাদ্দার সামরিক বাহিনীর বহু সংখ্যক সৈন্য নিহত এবং আহত হয়েছে। নিহত সেনাদের মধ্যে সামরিক বাহিনীর একজন সিনিয়র অফিসারও রয়েছে বলে জানা গেছে। যার সত্যতাও নিশ্চিত করেছে দেশটির সামরিক বাহিনী।

এভাবে পুরো পশ্চিম আফ্রিকাজুড়েই ইসলাম ও মুসলিমের শত্রুদের নাস্তানাবুদ করে চলেছেন ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধাগণ। অচিরেই শরিয়াহ শাসিত অঞ্চলের সীমানা বৃদ্ধি করতে করতে তাঁরা পূর্ব, মধ্য ও পশ্চিম আফ্রিকাকে যুক্ত করতে সক্ষম হবেন বলে মনে করছেন ইসলামি বিশ্লেষকগণ।

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন