মুম্বাইয়ের সমাবেশে মুসলিমদের গণহত্যা ও অর্থনৈতিক বয়কটের আহ্বান

উসামা মাহমুদ

0
457
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

ভারতের মুম্বাইয়ের একটি সমাবেশ থেকে মুসলিম গণহত্যা এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি অর্থনৈতিক বয়কটের আহ্বান জানিয়েছে হিন্দু নেতাকর্মীরা। গত ২৬ জানুয়ারী রবিবারে মুম্বাইয়ের ভাশিতে হিন্দু জন আক্রোশ মোর্চা সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়। এটি গত মাসে মুম্বাইতে সাকাল হিন্দু সমাজ কর্তৃক আয়োজিত এই ধরণের তৃতীয় হিন্দুত্ব সমাবেশ। সাকাল হিন্দু সমাজ হল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ এবং বজরং দলসহ অনেক হিন্দুত্ববাদী সশস্ত্র গোষ্ঠীর সম্মিলিত সংগঠন।

এই সমাবেশগুলোর ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ ছিল ‘কোনও ঘৃণাত্মক বক্তব্য’ না দেওয়ার শর্তে অনুমতি দেওয়া হবে। কিন্তু একের পর ঘৃণাত্মক বক্তব্য দেওয়া হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি আইন প্রশাসন।

সাকাল হিন্দু সমাজ দাবি করেছে যে তারা ‘লাভ জিহাদ’ এবং ‘ল্যান্ড জিহাদ’-এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছে। অথচ, ‘লাভ জিহাদ’ এবং ‘ল্যান্ড জিহাদ’ বলতে কিছু নেই। ভারত জুড়ে মুসলিম বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য হিন্দুত্ববাদী দলগুলো অবান্তর বিষয়গুলোকে জিহাদ হিসেবে প্রোপাগান্ডা চালায়।
উল্টো ভারতের নানান জায়গা থেকে এখন উগ্র হিন্দু কর্তৃক মুসলিম নারীদের অপহরণ ও জোরপূর্বক বিয়ের খবর আসছে অহরহ। জোর করে বিয়ে করার পর তাদেরকে হিন্দুধর্মে ধর্মান্তরিত করতে জোরজবরদস্তি ও অত্যাচার করা হচ্ছে।

মুম্বাইয়ের সমাবেশ থেকে উগ্র হিন্দুরা গেরুয়া পোষাক পড়ে বাশির ব্লু ডায়মন্ড চক থেকে শিবাজি চক পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার পথ মিছিল করে। সে মিছিলে গণেশ নায়েক বিধায়কসহ অনেক বিজেপি নেতা উপস্থিত ছিল।

ভাশিতে বসবাসকারী একজন ছাত্র মাকতুব মিডিয়াকে জানিয়েছে সমাবেশটিতে হিন্দুরা মুসলিম গণহত্যার স্লোগান দেয়- “সমস্ত মুসলমানদের হত্যা করুন, ভারতকে একটি ভাল জায়গায় পরিণত করুন।”
তিন আরও বলেন, “আমার অ্যাপার্টমেন্টের বারান্দা থেকে, আমি একটি দুঃখজনক দৃশ্য দেখেছি- হাজার হাজার হিন্দু পুরুষ, মহিলা এবং এমনকি শিশুরা মুসলিম গণহত্যার স্লোগান দিচ্ছে। উপস্থিত প্রত্যেকের মুখ ঘৃণাতে ভরা ছিল। এবং এটি দেখা আমার জন্য সত্যিই একটি যন্ত্রণাদায়ক অভিজ্ঞতা ছিল।”

কাজল শ্রিংলা ওরফে ‘কাজল হিন্দুস্থানী’, একজন গুজরাটি হিন্দুত্ববাদী নেতা। সে তার বক্তৃতায় বলেছে, “এখানে (ভারতে) ল্যান্ড জিহাদ এতটাই প্রবল হয়ে উঠেছে যে, আজকে অন্তত ২৫ জন বাংলাদেশী মুসলমান এক ঘরে বাস করে। তারা আমাদের সবজির বাজার দখল করেছে। আমি চাই আপনারাও আমার পরে আওয়াজ তুলবেন- আমরা, মহারাষ্ট্রের মানুষ, অর্থনৈতিকভাবে তাদের (মুসলিমদের) বয়কট করব।”

সাংবাদিক রানা আইয়ুব সমাবেশের কাছে ছিলেন, তিনি টুইটারে সমাবেশের একটি ছবি শেয়ার করেছেন। ছবিতে দেখা যায় হিন্দুরা মুসলিম বিরোধী পোস্টার প্ল্যাকার্ড দেখাচ্ছে। যেখানে লেখা ‘আব্দুল, আসলাম কি কেয়া পেছন, লাডকি বাকরি এক সামান’।



তথ্যসূত্র:
——–
1. At Navi Mumbai rally, calls issued for Muslim genocide, economic boycott
https://tinyurl.com/ytweut76

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধতুর্কিস্তান ইসলামিক পার্টি: চীনা হায়েনাদের বিরুদ্ধে অদম্য এক প্রতিরোধ আন্দোলন [পর্ব-১]
পরবর্তী নিবন্ধকাশ্মীরে দুই মুসলিম যুবককে খুন করলো দখলদার ভারতীয় সৈন্যরা