নাম মুসলমান,তাই বিজেপি নেতারাও হামলা থেকে ছাড় পায়নি !

0
920

সংখ্যালঘু সেল-এর প্রধান মোহাম্মদ আতিক –
“এখনো বিজেপি ছাড়ি নি, কিন্তু আর কিছুদিনের মধ্যে যদি পার্টি আমার সঙ্গে যোগাযোগ না করে…ম্যায় সড়ক পর আ গয়া হুঁ, ফির ক্যায়সে অপনে প্যায়রোঁ পে খাড়া হুঁ (আমি রাস্তায় এসে গেছি, নিজের পায়ে ফের দাঁড়াব কী করে)?” বলছেন মোহাম্মদ আতিক, ভারতের রাজধানী দিল্লির ব্রহ্মপুরি মণ্ডলের বিজেপি সংখ্যালঘু সেল-এর প্রধান। উসমানপুরের বাসিন্দা আতিকের কারাওয়াল নগরে অবস্থিত কাপড়ের কারখানায় আগুন ধরিয়ে দেয়া হয় গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে।

“আমার প্রতিবেশী ফোন করে জানান আগুনের কথা। আমি নিজে এখনও ভয়ে কারখানায় যাইনি। কাছেই আমার ছোট ভাইয়ের কারখানাতেও আগুন ধরানো হয়। আমি আশা করেছিলাম যে বিজেপির নেতারা অন্তত ফোন করবেন, সাহায্য করার কথা বলবেন, সান্ত্বনা দেবেন,” বলছেন ৪৫ বছর বয়সী আতিক।

পাঁচ সন্তানের পিতা আতিক গত ১৬-১৭ বছর ধরে বিজেপির নিচুতলার কর্মী হিসেবে কাটিয়েছেন। তার কথায়, “আমাদের দিল্লির বিজেপি প্রধান মনোজ তিওয়ারির মতোই আমিও বিহারের লোক। উনি চেনেন আমাকে…কিন্তু আমার নামটা মুসলমান তো, হামে তো পরায়া হি কর দিয়া (আমাকে তো দূরে ঠেলে দিয়েছেন)।”

আতিক জানান, প্রায় ১৪ বছর আগে ভাড়া করা জায়গায় তিনি কারখানা চালু করেন। “দিল্লিতে সহিংসতা যেদিন বাড়তে শুরু করল, তার ঠিক আগের দিন আমি আমার কর্মীদের বলি যেন পাততাড়ি গুটিয়ে বাড়ি চলে যায়। যখন আগুনের খবর আসে, আমি তখন বাড়িতে…কী যে অসহায় লাগছে,” বলছেন তিনি।

আতিকের আরো বক্তব্য, তার বিজেপি কর্মী হওয়া নিয়ে মুসলমান সম্প্রদায়ের একাধিক প্রশ্নের মুখে পড়েছেন তিনি। “আমি প্রধানমন্ত্রী (নরেন্দ্র) মোদির ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’ স্লোগানে বিশ্বাস করেছিলাম, যারা বিজেপির সমালোচনা করত, তাদের সঙ্গে তর্ক করতাম। এখন ওরাই আমায় জিজ্ঞেস করছে, পার্টি আমার জন্য কী করেছে। আমার কাছে কোনো উত্তর নেই।”

আতিকের মতো বিজেপির সংখ্যালঘু সেলের জেলা সহ-সভাপতি আখতার রাজার বাড়িতেও ২৫ ফেব্রুয়ারি হিন্দু সন্ত্রাসীরা হামলা করে । আখতার টেলিগ্রাফকে জানায়, তার নিজের ও তিন নিকট আত্মীয়ের বাড়ি সহ মোট উনিশটি মুসলিম বাড়ি আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয় উগ্র হিন্দু সন্ত্রাসীরা । সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

এ ঘটনার পর আখতার পুলিশ ও পার্টির নেতাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও কেউ তার সাথে যোগাযোগ করেনি । ফোন পর্যন্ত রিসিভ করেনি নেতারা । সরকার থেকেও পুনর্বাসনের জন্য কোনো সহায়তা দেয়া হয়নি । এমনটাই টেলিগ্রাফ কে জনান বিজেপি নেতা আখতার রাজা ।

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন