ভারতের আগ্রাসন: এবার বিজয় দিবসকে নিজেদের দাবী হিন্দুত্ববাদী ভারতের

1
1470
ভারতের আগ্রাসন: এবার বিজয় দিবসকে নিজেদের দাবী হিন্দুত্ববাদী ভারতের

আজ ১৬ই ডিসেম্বর। বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে ৫০তম ‘বিজয় দিবস।’ একইসাথে মুজিব বর্ষের সমাপনী দিবস এবং ভারত-বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তীও উৎযাপিত হচ্ছে। আর এসব অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত হয়েছে ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী রাষ্ট্রপতি রামনাথ কুবিন্দ।

বাংলাদেশে কোনো রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান হলেই ভারত সরকারের কাউকে না কাউকে আমন্ত্রণ করা হয়। এর আগে মুজিব বর্ষ উৎযাপনে গুজরাটের কসাই ভারতীয় উগ্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। বাংলাদেশের মানুষ তার আগমনের বিরোধিতা করলেও, বাংলাদেশের মানুষের বুকের রক্ত দিয়ে রাজপথ রঞ্জিত করে হিন্দুত্ববাদী ঐ নেতাকে এদেশে নিয়ে আসা হয়েছিল। যেন হিন্দুত্বাবাদীদের ছাড়া বাংলাদেশের উৎযাপন অসম্পূর্ণ রয়ে যাবে। যেন হিন্দুত্ববাদী ভারতীয় নেতারাই বাংলাদেশেরও হর্তাকর্তা, আর বাংলাদেশের শাসকগোষ্ঠী হলো ভারতের সেবাদাস।

এমনই বুঝা যায় বাংলাদেশ নিয়ে ভারতীয় হিন্দু নেতাদের উগ্র বক্তব্য ও বাংলাদেশের কথিত স্বাধীনতার চেতনাধারীদের নিশ্চুপ থাকার মধ্য দিয়েও। ভারত ক্রমাগতভাবে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে নিজেদের বলে দাবি করে। তারা বলে, ১৯৭১ সালে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ হয়েছে, আর সেই যুদ্ধে ভারত জয়ী হয়েছে। ভারতের সরকার, সেনাবাহিনী, মিডিয়া থেকে নিয়ে সাধারণ মানুষ পর্যন্ত সবাই এ কথা বলে। এজন্য তারা ১৬ই ডিসেম্বরকে ভারতের বিজয় দিবস হিসেবে উৎযাপনও করে।

২০২০ সালের ১৬ই ডিসেম্বরে বিজয় দিবসে উগ্র নরেন্দ্র মোদী ১৯৭১ সালের যুদ্ধে ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী বাহিনীর সদস্যদের ‘অসীম সাহসিকতা’-কে স্মরণ করে টুইট করেছে। কিন্তু তার টুইটে যেমন আসেনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রসঙ্গ তেমনি ওই টুইটে যে অসংখ্য ভারতীয় মন্তব্য করেছে তাদেরও প্রায় সবাই ওই যুদ্ধকে চিত্রিত করেছে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার যুদ্ধ হিসেবে।

অথচ, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মানুষ নিজেদের রক্ত বিলিয়ে দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধ করে পাকিস্তানী বাহিনীকে বিপর্যস্ত করে ফেলেছিলেন। এরপর যুদ্ধের একেবারে শেষদিকে ভারতীয় সেনাবাহিনী কূটচিন্তা নিয়ে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে জড়িত হয়। আর ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশ-ভারত যৌথ বাহিনীর কাছে পাকিস্তান আত্মসমর্পণ করে। কিন্তু ভারত এ কথা পুরোপুরি অস্বীকার করছে। যৌথবাহিনীর কথা উল্লেখ না করে তারা বার বার বলছে, পাকিস্তান ভারতের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে। তারা বলে, ভারত বাংলাদেশকে দয়া করে স্বাধীন করে দিয়েছে। এভাবে প্রতিনিয়তই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ভারত মিথ্যাচার করে, মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান করে।

কিছুদিন আগে পাকিস্তান ক্রিকেট টিম অনুশীলনের সময় পাকিস্তানের পতাকা টানানোর কারণে কথিত মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ মামলা করেছিল। পাকিস্তানের জার্সি পরিধানের কারণে অনেককেই প্রকাশ্যে নির্মমভাবে নির্যাতন পর্যন্ত করেছিল। কিন্তু এখন ভারত রাষ্ট্রীয়ভাবে যখন মুক্তিযুদ্ধকে অস্বীকার করছে, অপমান করছে, তখন এরা চুপ। উলটো ভারতের রাষ্ট্রপতিকে নিয়ে এসেছে বিজয় দিবস পালন করার জন্য। কথায় কথায় ’৭১-এর চেতনা ফেরি করে বেড়ালেও, এরা মূলত ভারতের দালাল।

১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বরে বাংলাদেশের মানুষ প্রকৃতপক্ষে বিজয় পাননি। এদেশের মানুষ আগে পাকিস্তানী শাসকদের হাতে নির্যাতিত হতেন, এখন নির্যাতিত হন ভারত আর তার দালালদের হাতে। ভারতের দালালরা আবার ভারত-বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কেরও ৫০ বছর উৎযাপন করছে। কিন্তু এই কূটনৈতিক সম্পর্ক বাংলাদেশকে কী দিয়েছে? কী পেয়েছেন বাংলাদেশের মানুষ?

বাংলাদেশের মানুষ পেয়েছেন—সীমান্ত হত্যা, পানি বণ্টনে বৈষম্য, বাণিজ্যনীতিতে বৈষম্য, রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ, ক্রমাগত তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করা, হিন্দুদের উসকানি দেওয়া, শাপলা-ভোলা-কুমিল্লায় মুসলিমদের বুকে গুলি চালানোসহ নির্যাতনের এক দীর্ঘ ইতিহাস।

নির্যাতনের এই ইতিহাসের ইতি টানতে হলে মুসলিমদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, ইসলামের আলোকে সমাধানের পথ বের করতে হবে। হিন্দুত্ববাদী আগ্রাসনের মোকাবেলায় কাফেরদের শেখানো তন্ত্র-মন্ত্রের বুলি না আওড়িয়ে, ইসলামের বিজয়ের জন্য কাজ করতে হবে।

লেখক: সাইফুল ইসলাম

তথ্যসূত্র:

১. ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারত জয়ী হয়েছে : ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী,  ১২ ডিসেম্বর, ২০২১, দৈনিক ইনকিলাব; https://tinyurl.com/ycxpkurv

২. Additional Directorate General of Public Information, IHQ of MoD (Army)- https://tinyurl.com/bdy5jf3n

৩. 49th Vijay Diwas: Twitter Remembers India’s Historic Victory in 1971 War, Salutes Sacrifices of Martyrs, December 16, 2020; https://tinyurl.com/4rejpb4n

৪. Indian Army’s misleading tweet about 1971 war adds to culture of jingoistic misinformation, puts Bangladesh govt in tight spot, December 17, 2017, Firstpost; https://tinyurl.com/42sh56r2

৫. ৭১-র মুক্তিযুদ্ধকে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ বলছে কেন অনেক ভারতীয়, ১৬ ডিসেম্বর ২০২০, বিবিসি বাংলা; https://tinyurl.com/mr4awp4d

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন