আশ-শাবাবের এক ইস্তেশহাদি হামলায় উচ্চপদস্থ ১০ কর্মকর্তা সহ ৪০ এরও বেশি গাদ্দার হতাহত

ত্বহা আলী আদনান

4
1259
আশ-শাবাবের এক ইস্তেশহাদি হামলায় উচ্চপদস্থ ১০ কর্মকর্তা সহ ৪০ এরও বেশি গাদ্দার হতাহত

মধ্য সোমালিয়ায় পশ্চিমা সমর্থিত গাদ্দার প্রশাসনের উপর একটি সফল ইস্তেশহাদী হামলার ঘটনা ঘটেছে। শহরে সংঘটিত উক্ত ভারী বিস্ফোরণে কমপক্ষে ২০ কর্মকর্তা নিহত হয়েছে। এবং আরও দুই ডজনেরও বেশি কর্মকর্তা আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিনের একজন ইস্তেশহাদী মুজাহিদ উক্ত বীরত্বপূর্ণ অপারেশনটি পরিচালনা করছেন। যা সোমালি গাদ্দার প্রশাসনের সদর দফতরের কাছে হিরশাবেলী প্রশাসনের কর্মকর্তাদের একটি সমাবেশস্থলে প্রবেশ করে চালানো হয়েছে। এতে গাদ্দার প্রশাসনের কর্মকর্তাদের মধ্যে ভারী হতাহতের ঘটনা ঘটে।

শাহাদাহ এজেন্সির তথ্য মতে, আশ-শাবাবের দুর্দান্ত উক্ত শহিদি হামলায় সোমালি গাদ্দার প্রশাসনের অন্ততপক্ষে ২০ সদস্য নিহত হয়েছে।

নিহতদের মধ্যে রয়েছে:

– হিরাণ অঞ্চলের সাবেক ডেপুটি গভর্নর।

– বালদাউইন প্রশাসনের সামাজিক বিষয়ক ডেপুটি চেয়ারম্যান।

– হিরশাবেলী প্রশাসনের সংসদ সদস্য।

– বালদাউইনে গোয়েন্দা সংস্থার প্রাক্তন ডেপুটি কমান্ডার, যার নাম সংক্ষেপে আবর।

– ফুডক্যাড, হিরণ আঞ্চলিক প্রশাসনের প্রাক্তন পরিচালক।

– গোয়েন্দা বিভাগের প্রাক্তন ডেপুটি ইনচার্জ, এছাড়াও রয়েছে…

– হিরাণ রাজ্য প্রশাসনের এক সচিব।

বিস্ফোরণে গাদ্দার প্রশাসনের আরও ২ ডজনেরও বেশি সদস্য আহত হয়েছে। যাদের মধ্যে রয়েছে বালদাউইনের ডেপুটি সিকিউরিটি কমিশনার ‘দেবঘাদ’ এবং বালদাউইনের ডেপুটি ফিনান্স কমিশনার। আহতদের মধ্যে আরও রয়েছে শহরটির একাধিক সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, সোমালি সংসদ নির্বাচন কমিটির সদস্য এবং সরকারি মিলিশিয়া সদস্যরা।

উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি আল-কায়েদা যোদ্ধারা সোমালিয়ার রাজধানী সহ গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোতে হামলার তীব্রতা বাড়িয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে, হারাকাতুশ শাবাব খুব দ্রুততার সাথেই তাদের লক্ষ্যপানে ছুটে চলেছেন। তাঁরা সোমালিয়া জুড়ে একটি শক্তিশালী ইসলামি সরকার গঠনে বছরের পর বছর ধরে প্রতিরোধ যুদ্ধ চালিয়ে আসছেন।

4 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন