ভোটকেন্দ্রে হামলা চালিয়ে মুসলিম ভোটারদের মারধর করেছে উত্তর প্রদেশের পুলিশ

0
89

ভারতের সম্বল জেলার মনসুরপুর থেকে প্রায় ৪ কিমি দূরে, ওভারি গ্রাম। এখানে ৪,৫০০ ভোটার রয়েছেন, যাদের অধিকাংশই মুসলিম। ৭ মে, লোকসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ চলছিল; এসময় ইউপি পুলিশ ভোট গ্রহণ বুথে হামলা চালিয়ে মুসলিম ভোটারদের মারধর করে তাদের আইডি ছিনিয়ে নেয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, হঠাৎ করেই প্রায় ১০ টি এসইউভি ভোট কেন্দ্রের বাইরে এসে থামে। প্রায় ৩০-৪০ জন পুলিশ কেন্দ্রে প্রবেশ করে, ভোটারদের কাছ থেকে পরিচয়পত্র এবং ভোটের স্লিপ ছিনিয়ে নেয় এবং তাদের ফাইবার লাঠি ও কাঠের লাঠি দিয়ে মারধর শুরু করে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের একজন ১৮ বছর বয়সী মোহাম্মদ জামাল বলেন, “দুইজন পুলিশ সদস্য আমার কাছে এসে আমার পরিচয়পত্র চেয়েছিল,” “আমি ভয় পেয়েছিলাম এবং আমার পরিচয়পত্র তাদের হাতে দিয়েছিলাম। তারপর তৃতীয় একজন পেছন থেকে আমার ঘাড়ে চড় মারল। আমি বুথ থেকে বের না হওয়া পর্যন্ত তারা আমাকে মারতে থাকে। ভোটাররা পুলিশের হামলা থেকে বাঁচতে দৌড়ে বেরিয়ে যেতে থাকে। এমনকি কয়েক মিনিটের মধ্যে ভোট কেন্দ্র জনশূন্য হয়ে পড়ে।”

সম্বলের আসমাউলি বিধানসভা কেন্দ্রের বেশ কয়েকটি মুসলিম-প্রধান গ্রামের ভোট কেন্দ্রে পুলিশের অনুরূপ হামলার খবর পাওয়া গেছে। এই গ্রামগুলিতে, ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ঐতিহ্যগতভাবে তার প্রতিপক্ষ সমাজবাদী পার্টির থেকে পিছিয়ে রয়েছে। ২০১৯ সালে সমাজবাদী পার্টির প্রার্থী প্রয়াত শফিকুর রহমান বারক ১.৭৫ লাখ ভোটে আসনটিতে জিতেছিল।


তথ্যসূত্র:
1. In Sambhal, Muslims allege UP police stormed booths, snatched IDs and beat up voters on polling day
https://tinyurl.com/48p9y7p6

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ১০ মে, ২০২৪
পরবর্তী নিবন্ধনিজেদেরই বোমা বিস্ফোরণে ৪ ইসরায়েলি সেনা নিহত