মধ্যপ্রদেশে পুলিশী হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের নামে মুসলিম যুবককে খুন

উসামা মাহমুদ

0
371
একটি ভিডিওর স্ক্রিনশটে ইসরায়েল খানের পরিবার

মধ্যপ্রদেশে বাসিন্দা জনাব ইজরায়েল খান। গত ২১ নভেম্বর সোমবার মধ্যপ্রদেশের গুনা জেলায় ভোপালে ইজতেমায় (ধর্মীয় জামাতে) যোগদানের পরে বাড়ি ফেরার সময় হিন্দুত্ববাদী পুলিশ তাকে আটক করে। পরে পুলিশী হেফাজতেই জিজ্ঞাসাবাদের সময় ঐ মুসলিম যুবককে খুন করা হয়। তখন ৩০ বছর বয়সী ইজরায়েল খান একটি অটোতে শহরের গোকুল সিং এলাকায় তার বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন।

সেসময় কুশমোদা পুলিশ চৌকিতে তাকে আটক করে। পুলিশ সদস্যরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পুলিশ খানকে কিছু তথ্য দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত টর্চার করে।

এক পর্যায়ে ইজরায়েল খান অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। মৃত্যুকে কেন্দ্র করে জেলা হাসপাতালে বিক্ষোভ করেন মৃতের পরিবারের সদস্যরা এবং অন্যান্য লোকজন। দোষী পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে লাশ নিয়ে মহাসড়কে বিক্ষোভও করেন তারা।

স্থানীয় গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলে পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, সুস্থ অবস্থায় আটকের পর থানায় জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশ তাকে বেড়ক মারধর করেছে।

ইজরায়েলের বাবা মুনাওয়ার খান বলেছেন, আমরা সাধারণ মানুষ। “আমাদের কোনো অপরাধমূলক কাজের রেকর্ড নেই। আমার ছেলের কোনো অপরাধমূলক রেকর্ড নেই।”

পরিবারের এক সদস্য বলেছেন, হিন্দুত্ববাদী পুলিশ সদস্যরা আমাদের কাছ থেকে ১ লাখ টাকা চেয়েছিল, কিন্তু আমরা মাত্র ৩০,০০০ টাকা দিতে পারি। “আমরা বাকি ৭০,০০০ এর ব্যবস্থা করেছিলাম। কিন্তু আমরা টাকা পৌঁছানোর আগেই ইজরায়েলকে খুন করা হয়।”



তথ্যসূত্র:
——-
1. Muslim Man in MP Dies during Interrogation, Family Alleges Foul Play
2. Madhya Pradesh: Judicial inquiry ordered into alleged custodial killing in Guna district

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন