পালটে যাচ্ছে ইয়েমেনের পরিস্থিতি

    8
    1650
    সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

    আল-কায়েদা আরব উপদ্বীপ ভিত্তিক জনপ্রিয় ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী জামা’আত আনসারুশ শরিয়াহ্। সাম্প্রতিক সময়ে দলটি ইয়েমেন জুড়ে তাদের উপস্থিতি ও সামরিক অপারেশনের পরিধি বাড়িয়েছে। এতে ইসলাম বিরোধী মিলিশিয়া বাহিনীগুলোতে প্রতিনিয়ত হাতাহতের সংখ্যাও বাড়ছে।

    বিশেষ করে গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে আরব আমিরাতের ভাড়াটে বাহিনী ও ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী আনসারুশ শরিয়াহ্’র মাঝে যুদ্ধ তীব্র আকার ধারণ করেছে। উভয় বাহিনীই একে অপরের বিরুদ্ধে সামরিক অপারেশন ঘোষণা করেছে। এই যুদ্ধ শুরু হওয়ার প্রথম ২ মাসেই আরব আমিরাতের ভাড়াটে বাহিনীতে হতাহতের সংখ্যা ছাড়িয়েছিল ৪ শতাধিক, যার ধারা এখনো অব্যাহত রয়েছে।

    আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট মিডিয়া সূত্র থেকে জানা যায়, আনসারুশ শরিয়াহ্’র মুজাহিদগণ গত ১লা মে থেকে ১১ মে পর্যন্ত আরব আমিরাতের বাহিনীকে লক্ষ্য করে ছোট-বড় অন্তত ১৩টি অভিযান পরিচালনা করেছেন। এর মধ্যে ৯টি অভিযানই পরিচালনা করা হয়েছে আবয়ান প্রদেশে এবং বাকি ৪টি শাবওয়াহ প্রদেশে।

    আল-মালাহিম মিডিয়া সূত্রমতে, মুজাহিদদের একটি স্নাইপার অভিযানে আল-বাকিরা এলাকায় ৩ শত্রুসেনা নিহত হয়েছে এবং বাকিরা চেকপয়েন্ট ছেড়ে পালিয়ে গেছে। স্থানীয় সূত্রমতে, আনসারুশ শরিয়াহ্’র মুজাহিদদের বাকি ১৪টি অভিযানে আরও কয়েক ডজন শত্রু হতাহত হয়েছে। পাশাপাশি মুজাহিদগণ শত্রুদের একটি অস্থায়ী সামরিক ঘাঁটি গুড়িয়ে দিয়েছেন এবং ৬টি সাঁজোয়া যান ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছেন।

    উল্লেখ্য যে, বর্তমানে আনসারুশ শরিয়াহ্’র মুজাহিদদের অধিকাংশ সামরিক অভিযানগুলিই চালানো হচ্ছে আদনে আবয়ানে। রাজ্যটিতে মুজাহিদদের তীব্র অভিযানের ফলে গত মাসের শেষ নাগাদ ৪টি এলাকা থেকে পিছু হটেছে আরব আমিরাতের ভাড়াটে মিলিশিয়ারা। ফলে মুজাহিদগণ এসব এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হয়েছেন এবং এই অঞ্চলে নিজেদের শক্তি বৃদ্ধি করেছেন।

    আদনে আবয়ানে সামরিক অপারেশন ছাড়াও, আনসারুশ শরিয়াহ্’র মুজাহিদগণ ইয়েমেনের শাবওয়াহ, মা’রিব, হাদরামাউত, আল-মাহরাহ প্রদেশ এবং ইডেন শহরের নিকটতম আল-কুদ শহরের বেশ কিছু এলাকার উপর নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হয়েছেন। আলহামদুলিল্লাহ্।

    মুজাহিদদের সাম্প্রতিক অভিযানে ইবনে জায়েদের বাহিনীতে ক্ষয়ক্ষতির কিছু চিত্র…

    রাসূল (ﷺ) এই আদনে আবয়ান সম্পর্কে ভবিষ্যৎ বাণী করে বলেছেন, “আদনে আবয়ান থেকে বারো হাজারের একটি বাহিনীর আবির্ভাব হবে, তাঁরা আল্লাহ্ ও তাঁর রাসূল (ﷺ) কে সাহায্য করবে। তাঁরা হবে আমার ও তাদের সময়ের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ।”

    আল্লাহ তা’আলা আনসারুশ শরিয়াহ’র মুজাহিদদেরকে সেই বাহিনীর অন্তর্ভুক্ত করুন। আমিন।

    8 মন্তব্যসমূহ

    মন্তব্য করুন

    দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
    দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

    পূর্ববর্তী নিবন্ধভারতে মুসলিমদের প্রতি বাড়ছে সহিংসতা: গণহত্যার অশনি সংকেত
    পরবর্তী নিবন্ধ‘থুক জিহাদের’ অভিযোগে দিল্লিতে জুসের দোকানে বজরং দলের হানা