অতর্কিত হামলায় পরাভূত মার্কিন প্রশিক্ষিত ২৫ গাদ্দার সোমালি সৈন্য

ত্বহা আলী আদনান

0
714

সোমালিয়ায় ইসলামি হুকুমত ফিরিয়ে আনতে গাদ্দার-কুফ্ফারদের সম্মিলিত বাহিনীর বিরুদ্ধে একের পর এক দুর্দান্ত সব সফল অভিযান পরিচালনা করছেন প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাব। এতে আশ-শাবাবের হাতে প্রচুর সংখ্যক কুফ্ফার সৈন্য ধরাশায়ী হচ্ছে। গত ১৫ সেপ্টেম্বর মধ্য রাতে এমনই একটি দুর্দান্ত সফল অভিযান পরিচালনা করছেন মুজাহিদগণ।

স্থানীয় সূত্র মতে, হামলাটি সোমালিয়ার কেন্দ্রীয় হিরান রাজ্যের বোলোবর্দি শহরে চালানো হয়েছে। যা প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাবের ইসলামি শরিয়াহ্ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত একটি অঞ্চল। আর এই শহরটি থেকে হারাকাতুশ শাবাবকে হটাতে ঐ রাতে অভিযান চালানোর উদ্দেশ্যে বের হয় মার্কিন প্রশিক্ষিত সোমালি স্পেশাল ফোর্স। যারা “দানব” ফোর্স নামেও পরিচিত।

যাইহোক, দানবদের এই অভিযানের তথ্য আগেই জানতে পারেন হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিন। তাই মুজাহিদগণও দানব বাহিনীকে পরাভূত করতে দানবীয় সামরিক প্রস্তুতি নিয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন। সেনারা মধ্যরাতে বিশাল সামরিক বহর নিয়ে চুপিচুপি শহরটিতে ঢুকার চেষ্টা করে।

আর তখনই আশ-শাবাব মুজাহিদিন তাদের সামরিক প্রস্তুতির সক্ষমতা দেখান। মুজাহিদগণ অতর্কিত হামলা করে বসেন দানব বাহিনীর উপর, ফলে সেখানে শুরু হয় দুই বাহিনীর মাঝে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। তবে লড়াইয়ের প্রথম দিকেই যুদ্ধ করার মনোবল হারায় মার্কিন প্রশিক্ষিত স্পেশাল ফোর্স। কেননা তারা এমন অতর্কিত আর কঠিন হামলার জন্য প্রস্তুত ছিলোনা।

ফলশ্রুতিতে মার্কিন বাহিনী কর্তৃক ড্রোন দ্বারা সহায়তা করা সত্যেও অল্প সময়ের মধ্যেই মুজাহিদদের হাতে ধরাশায়ী হয় দানব ফোর্স। মুজাহিদদের তীব্র হামলা আর বিস্ফোরণের সফল লক্ষ্যবস্তু হতে থাকে শত্রুবাহিনীর সামরিক কনভয়। বোমা বিস্ফোরণে উড়ে যায় টিরও বেশি সাঁজোয়া যান। এছাড়াও আরও কয়েকটি সাঁজোয়া যান উল্টে যায়, যেগুলো তড়িঘড়ি করে পালানোর চেষ্টা করেছিল।

এসময় মুজাহিদদের হাতে নিহত হয় মার্কিন-সমর্থিত বিশেষ বাহিনীর ১০ এর অধিক সৈন্য, আহত হয় আরও ১৫ এরও বেশি। বাকিরা ধ্বংস হওয়া যানবাহন এবং অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম রেখেই তড়িঘড়ি করে যুদ্ধের ময়দান ছেড়ে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা আল-আন্দালুস রেডিওকে জানান, মুজাহিদদের দুর্দান্ত এই হামলায় হতাহত মার্কিন প্রশিক্ষিত সেনাদের উদ্ধারে ৩টি হেলিকপ্টার কাজ করেছে। তাই সন্ত্রাসী মার্কিনীদের সোমালিয়ায় প্রত্যাবর্তন যে নিশ্চিতভাবেই ব্যর্থতায় পর্যবসিত হতে যাচ্ছে, এই ঘটনা তারই ইঙ্গিত বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন